বুধবার ৩০ নভেম্বর, ২০২২ | ১৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৯

২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে: বাহাউদ্দিন নাছিম

অনলাইন ডেস্ক : | শনিবার, ০২ অক্টোবর ২০২১ | প্রিন্ট  

২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে: বাহাউদ্দিন নাছিম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, ২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত হাওয়া ভবনের নীলনকশায় কারচুপির মাধ্যমে নির্বাচনে জিতে তাণ্ডব শুরু করেছিল। আজ সেই পহেলা অক্টোবর। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী যেভাবে বাঙালির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েছিল, ২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত একই কায়দায় নিরীহ বাঙালির ওপর হামলা করেছিল।

‘২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর তারা (বিএনপি-জামায়াত) অগ্নিসংযোগ, লুটতরাজ, নারী নির্যাতন, হত্যার মাধ্যমে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল। সেদিন যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল, নির্যাতিত হয়েছিল, জীবন দিয়েছিল, তাদের প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা জানাই।

শুক্রবার শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ২০০১ সালের পহেলা অক্টোবর বিএনপি-জামায়াত ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে অসংখ্য মানুষকে হত্যা করেছিল, সংখ্যালঘুদের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দিয়ে দেশত্যাগে বাধ্য করেছিল। তারা হত্যা, লুণ্ঠন, ধর্ষণে মেতে উঠেছিল। পরবর্তীতে তা নিয়ে তদন্ত কমিশন গঠিত হয়েছিল। সেই কমিশনের রিপোর্ট অনুসারে সব অপকর্মকারীদের কঠোর বিচারের দাবি জানাই।

তিনি বলেন, ২০০১ সালের এই পহেলা অক্টোবরের পরই কুখ্যাত যুদ্ধাপরাধী নিজামী, সাঈদী, আলী আহসান মুজাহিদদের নিয়ে তারা (বিএনপি) সরকার গঠন করেছিল। এই স্বাধীনতাবিরোধীদের তারা পতাকা দিয়েছিল, মন্ত্রী করেছিল। যুদ্ধাপরাধী মতিউর রহমান নিজামীকে করেছিল কৃষিমন্ত্রী। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতাবিরোধীদের নিয়ে গঠন করেছিল বিএনপি আর এই স্বাধীনতাবিরোধীদের হাতে পতাকা তুলে দিয়েছিল খালেদা জিয়া। তারা দেশকে ধ্বংসের চরম জায়গায় নিয়ে গিয়েছিল। আমরা সেই বাংলাদেশে আর ফিরে যেতে চাই না।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সোনার বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছিলেন। তার সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। এসডিজি অর্জন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটির পক্ষ থেকে মুকুট মণি উপাধিতে ভূষিত করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলাদেশ হবে উন্নত-সমৃদ্ধ শান্তির সোনার বাংলাদেশ।

কৃষিবিদদের এই নেতা বলেন, ঐক্যই শক্তি। ঐক্য পারে সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিতে। সব বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কৃষিবিদদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশ, জাতি, কৃষক ও কৃষিবিদদের উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য প্রফেসর মো. শাদাত উল্লার মৃত্যুতে আয়োজিত স্বরণ সভায় বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, শাদাত উল্লা স্যার রাজনীতিবিদ ছিলেন না। তবে তিনি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী ছিলেন। উনি নেতা ছিলেন না। তবে শিক্ষক হিসেবে নেতার চেয়েও অনেক গুরুদায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি ছিলেন ছাত্রদের জন্য আস্থার জায়গা। আমরা তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করি।

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়ার সভাপতিত্ব স্বরণ সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ, কৃষকলীগ সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ, শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম মাসুদুর রহমান মিঠু, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান প্রমুখ। সূত্র: বাংলা ইনসাইডার

Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ১২:৫৯ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ০২ অক্টোবর ২০২১

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত