রবিবার ২৮ নভেম্বর, ২০২১ | ১৩ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

কুলাউড়ায় হিন্দু পরিবারকে চিঠি দিয়ে হত্যার হুমকি

বিশেষ প্রতিনিধি,সংবাদমেইল২৪.কম | শনিবার, ০১ জুন ২০১৯ | প্রিন্ট  

কুলাউড়ায় হিন্দু পরিবারকে চিঠি দিয়ে হত্যার হুমকি

একটি হিন্দু পরিবারকে দুই দফা বেনামী চিঠি দিয়ে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। এর দু’দিন পর গভীর রাতে গোয়াল ঘর ও রান্না ঘরে আগুন দেওয়া হয়। হিন্দু পরিবারেরদাবী চিঠি দিয়ে হুমকির পর গোয়াল ঘরে আগুন দিয়েছে হুমকিদাতারা। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার (২৮ মে) কুলাউড়ার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের গজভাগ গ্রামে। এঘটনায় ২জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এ ঘটনার পর বেশ আতংকে আছেন ধরনী মোহন চন্দ বাবুলের পরিবার। ধরনী মোহন বাবুল সম্মান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। ঘটনার পর আতংকিত পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি ইয়ারদৌস হাসান। বৃহস্পতিবার (৩০ মে) রাতে সরজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন ওসি। সাথে ছিলেন তদন্ত ওসি সঞ্জয় চক্রবর্তী ও এসআই বাদল। এসময় পাশ^বর্তী রাজু পাল (২৬) নামের এক জনকে আটক করেন। এ দিন রাতেই কুলাউড়া থানায় অজ্ঞাত ২-৩ জনকে বিবাদী করে মামলা (মামলা নং-৪৭) করেন শিক্ষক ধরনী মোহন চন্দ বাবুল। পরের দিন বিকেলে হারিছ আলীর ছেলে জায়েদ আলী (২০) কে আটক করে পুলিশ। আর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনোয়ার আলী (কালা মিয়া)র ছেলে জয়নুলকে থানায় আনা হয়।


জানা যায়, কয়েকদিন আগে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি বেনামী চিঠি দিয়ে খুনের হুমকি দেয় শিক্ষক ধরনী মোহন চন্দ বাবুলকে। প্রাথমিকভাবে চিঠির বিষয়টি আমলে নেননি তারা। গত মঙ্গলবার (২৮ মে) রাত ৩টায় বাঁশ ফুটার শব্দে ঘুম ভাঙ্গে শিক্ষক ধরনী মোহনের। ঘরে থেকে বেরিয়ে দেখতে পান বসত ঘরের পূর্ব পাশের রান্না ঘর ও গরুর গোয়াল ঘরে আগুন জ¦লছে। এসময় ধরনী মোহন হাল্লা চিৎকার করে গোয়াল ঘর থেকে গরু বের করতে গেলে আগুনের ডান হাত ও পিঠের কিছু অংশ পুড়ে যায়। খবর পেয়ে প্রায় ৪টায় কুলাউড়ার ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন।

ধরনী মোহন চন্দ বাবুল জানান- ‘আমাদের রান্না ঘর, চেয়ার, টেবিল ও গরুর গোয়াল ঘর আগুনে পুড়ে প্রায় দুই লক্ষ টাকা ক্ষতিসাধন হয়। আগুন দেওয়ার পরের দিন আরেকটি চিঠি দেয়। ওসি সাহেব আমার বাড়ি পরিদর্শন করেছেন।’


কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ বেলায়াত হোসন বলেন-‘আগুনের সূত্রপাত অজ্ঞাত। বাড়ির মালিক বলছেন কে বা কারা চিঠি দিয়ে হুমকি দিয়েছে।’

কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান শুক্রবার বিকেলে জানান-‘হিন্দু পরিবারের পাশে আমি আছি, পুলিশ প্রশাসন আছে। আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। এখন অবধি দু’জন আটক আছেন।’


Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ১০:১০ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০১ জুন ২০১৯

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত