শুক্রবার ২১ জানুয়ারি, ২০২২ | ৭ মাঘ, ১৪২৮

হাকালুকিতে ধান ও মাছ পঁচে অ্যামোনিয়া বৃদ্ধি : স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে হাওর পারের মানুষ

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০১৭ | প্রিন্ট  

হাকালুকিতে ধান ও মাছ পঁচে অ্যামোনিয়া বৃদ্ধি : স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে হাওর পারের মানুষ

আগাম অতি বৃষ্টিতে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে নানা জাত সবজি, চা ও কৃষিজ ফসলের। এমন অকাল বৃষ্টিপাত হওয়ায় বোরো ধান, চা বাগান ও বরবটিসহ নানা জাত সবজি ও ফসলের অভাবনিয় ক্ষতি মেনে নিতে পারছেন না সংশ্লিষ্ট কৃষকরা। কেউ কেউ উপার্জনের একমাত্র মাধ্যম বরবটি অতিরিক্ত বৃষ্টি পাতে ও বোরো ধান পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় ভবিষৎ নিয়ে চিন্তী। হাওরাঞ্চলের বোরো চাষিরা পুরো বছর ধরে অপেক্ষায় থাকেন বোরো ধানের মৌসুমের, কিন্তু এ বছর আগাম ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে তা ধংশ হয়ে গেছে। বড় বড় হাওর বিলে বোরো ধান পানিয়েে তালিয়ে যাওয়ায় তা পঁচে গিয়ে অ্যামোনিয়ার পরিমান ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, তাতে পানিতে থাকা মাছও ধিরে ধিরে মররে পঁচতে শুরু হয়েছে। তাতে নষ্ট হচ্ছে হাওরাঞ্চলের স্বাভাবিক পরিবেশ। এলাকাগুলোতে বাতাসে ভাসছে মাছ ও ধানের পঁচা দুর্গন্ধ। তা থেকে হাওরাঞ্চলে বসবাসকারী মানুষের নানা রোগ জীবাণুর ঝুঁকি বেড়ে গেছে, নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন।

এদিকে আগাম অতি বৃষ্টিতে কুলাউড়ার বেশ কয়েকটি চা বাগানের চারাতে ব্যাপক কক্ষতি হয়েছে এমনকি চা বাগানের টিলা ধসে পয়েছে।


অকাল বৃষ্টিতে কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজারের শ্রীপুরের বরবটি চাষিরাও ব্যাপক ক্সতির শিকার হয়েছেন। অতি বৃষ্টিতে বরবটির তলাতে অতিরিক্ত পানি জমে বরবটি গাছ মরতে শুরু করেছে।
নন্দনগর গ্রামের বরবটি চাষি আল-কামিন জানান, আমাদের অঞ্চলের বরবটি দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানি করা যেতো এবারের অকাল বৃষ্টিতেরপ্তানিতে ব্যাপক প্রভাব পড়েছে।

মৌলভীবাজারের হাকালুকি হাওরের কুলাউড়া, জুড়ী ও বড়লেখা অংশে হাওরে নিমজ্জিত বোরো ধান পঁচে পানিতে সৃষ্টি হয়েছে বিষক্রিয়া আর এর ফলে বড় মাছের পোনাসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছোট মাছ মারা যাচ্ছে।


কৃষি ও মৎস সম্পদ সংশ্লিষ্টদের ধারণা, এ বছর হাওরে আগাম বন্যা দেখা দেওয়ায় আধাপাঁকা বোরো ধান ও গাছ পঁচে যায় এবং ধান ক্ষেতে অতিমাত্রায় কীটনাশক প্রয়োগের ফলে পানিতে বিষক্রিয়া দেখা দেয়।

মৎস্য অফিসের তথ্য অনুযায়ী, ‘অকাল বন্যায় তলিয়ে যাওয়া এইসব আধাপাঁকা ধান ও ধান গাছ পঁচে পানির গুণাগুণ নষ্ট করেছে। এছাড়া ধান গাছ এবং ঘাস নিধনের জন্য দীর্ঘ মেয়াদী বিষ প্রয়োগে হঠাৎ পানির পিএইচ (পটেনশিয়াল অব হাইড্রোজেন) কমে গিয়ে স্বাভাবিক ৭ মাত্রা থেকে পিএইচ ৫.৮ মাত্রায় নেমে আসায় পানিতে অ্যামোনিয়ার পরিমান বৃদ্ধি এবং দ্রবীভূত অক্সিজেন হ্রাস (৫ পিপিএম) হয়ে যাওয়ায় ধান ও মাছ পঁচে হাওরের পানিসহ আশপাশের বাতাসেও দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে ব্যাপক হারে।’


গত কয়েক দিনের টানা ভারি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে হাকালুকি হাওরসহ এর তীরবর্তী এলাকার বোরো ধান পানিতে তলিয়ে যায়। যার ফলে হাওরের বোরো ধান পুরোপুরি নষ্ট হয়েগেছে।

গত শুক্রবার থেকে আধাপাঁকা বোরো ধান পঁচে গিয়ে দূর্গন্ধ ছড়িয়ে হাওরের পানি ও এলাকার বাতাস দূষিত হয়ে পড়েছে। এতে ব্যাপক হারে হাওরের রুই, বোয়াল, আইড়, গ্রাস কার্প, কালিয়ারা, বাউশসহ বিভিন্ন প্রজাতির বড় মাছ ও ছোট মাছের পোনা মরে পানিতে ভেসে ওঠতে শুরু করেছে বলে জানান স্থানীয়রা ।

হাকালুকি হাওরের চকিয়া বিলের ইজারাদার আনোয়ার হোসাইন জানান, গত দুই বছর ধরে চকিয়া বিলে মাছ ধরা বন্ধ ছিলো। এই দুই বছর ধরে বিলে রুই, কাতলসহ বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ১৫ লক্ষাধিক পোনা ছেড়ে ছিলাম। কিন্তু এখন হাওরের পানি দূষিত হয়ে যাওয়ায় পুরো হাওর জুড়ে ব্যাপক হারে মাছ মরে পানিতে ভেসে উঠছে। যার জন্য আমাদেরকে প্রায় ৩ কোটি টাকা  লোকসান গুনতে হবে।

তিনি আরও জানান, হঠাৎ করে হাওরে মাছ মরে যাওয়ায় সংশ্লিষ্ট মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা ও উপজেলা মৎস্য বিভাগের কমকর্তার ঘটনাস্থল পরিদর্শন মাধ্যমে পানিতে চুনসহ বিভিন্ন ঔষধ প্রয়োগ করে পানি বিষমুক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদমেইল২৪.কম/এন আই/জে এইচ জেড

Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ৭:৫৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০১৭

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত