সিলেট-ঢাকা চারলেন মহাসড়ক নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মতবিনিময়

সিলেট প্রতিনিধি,সংবাদমেইল২৪.কম | ২৯ জানুয়ারি ২০২০ | ৮:৫৪ অপরাহ্ণ
অ+ অ-

সিলেট-ঢাকা চারলেন মহাসড়কের কাজ কবে শুরু হচ্ছে, কীভাবে সেই কাজ হবে এবং তার প্রক্রিয়াগুলো নিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরের দায়িত্বর কর্মকর্তাদের সাথে (২৯ জানুয়ারী) বুধবার সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সভাপতিত্বে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সিলেট বিভাগের মন্ত্রী,সংসদ সদস্য, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতাদের ডেকে এই মতবিনিময় সভা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ।



তথ্যমতে, বৈঠক শুরুর আগেই মন্ত্রী ডেকে এনেছেন সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের প্রকৌশলীদের। আর বৈঠকে ঢুকে প্রথমেই সেই প্রকৌশলীদের
খোঁজ করলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

সড়কের প্রকৌশলীরা ঢাকা-সিলেট চারলেন কবে শুরু হচ্ছে, কীভাবে সেই কাজ হবে এবং তার প্রক্রিয়াগুলো এখানে তুলে ধরবেন। এই প্রকল্পের কাজ শুরু নিয়ে সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের প্রকৌশলীদের বিরুদ্ধে ধীর গতির অভিযোগ রয়েছে। সেসব নিয়েই হচ্ছে বৈঠকে।

দেশের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক ঢাকা-সিলেট চারলেন। এ মহাসড়ক আন্তর্জাতিক রুট হিসেবেও চিহ্নিত। তার ওপর দুর্ঘটনার ঝুঁকি আর উত্তর-পূর্বাঞ্চলের মানুষের যাতায়াতে দুই লেনের মহাসড়কটি চারলেন করার স্বপ্ন দেখানো হয় প্রায় এক যুগ আগে। প্রতিশ্রুতি দিয়ে দুটি নির্বাচনে দুই মেয়াদে ক্ষমতায় আসে বর্তমান সরকার। এর মধ্যে দ্বিতীয় মেয়াদে একটি কোম্পানির সঙ্গে চুক্তি করেও তা বাতিল করা হয়।

সবশেষ এশিয়ান ডেভলপমেন্ট ব্যাংক (এডিবি) অর্থায়নে সম্মত হয়। আগামী বছরের মাঝামাঝিতে সড়কের কাজ শুরু হতে পারে এমনটা মনে করছে সড়ক ও জনপথ অধিদফতর।

অধিদফতর সূত্র জানায়, প্রকল্পের ডিপিপি বা ডকুমেন্টেশন প্রণয়নের জন্য কনসালটেন্ট নিয়োগ করা হয়েছে। পাঁচ মাসের মধ্যে তারা এটি প্রস্তুত করবে। এখন ভূমি অধিগ্রহণ ও সমীক্ষার কাজ চলমান রয়েছে।

প্রকল্প প্রস্তাব অনুযায়ী, ঢাকার কাঁচপুর থেকে সিলেট পর্যন্ত ২২৬ কিলোমিটার সড়ক দুই লেন থেকে চারলেনে উন্নীত করা হবে এ প্রকল্পে। এই চারলেনের দুইপাশে আলাদা সার্ভিস লেন থাকবে। যেখানে ‘স্লোমুভিং’ যানবাহন চলাচল করবে। ২২৬ কিলোমিটার দীর্ঘ ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে সোয়া চার কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ৭০টি সেতু নির্মাণ করা হবে। চার হাজার ৩৫৮ মিটার দীর্ঘ চারটি ফ্লাইওভার নির্মাণ করা হবে ভৈরব, সিলেটের গোয়ালাবাজার, তাজপুর ও দয়ামীর বাজার এলাকায়। নরসিংদী, ভৈরব, ওলিপুর, লস্করপুর ও সিলেটে নির্মাণ করা হবে রেল ওভারপাস। এ মহাসড়ক হবে এশিয়ান হাইওয়ে-১ এবং এশিয়ান হাইওয়ে-২-এর অংশ।

সভায় সিলেট বিভাগের বিভিন্ন আসনের সংসদ সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী এমপি, মৌলভীবাজার-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সহিদ,সিলেট-৫ আসনের সংসদ সদস্য হাফিজ মজুমদার,সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য নাহিদ আহমদ, সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী, মৌলভীবাজার-২ আসনের সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ, সিলেট-২ আসনের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান, সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক, সুনামগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য জয়া সেনগুপ্ত, হবিগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল মজিদ।

আরো উপস্থিত ছিলেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্থ, সাধারণ সম্পাদক শাহ্ দিদার আলম নবেল, স্বাচিপ নেতা ডা. রবিন প্রমুখ।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 350 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
x