মঙ্গলবার ৪ অক্টোবর, ২০২২ | ১৯ আশ্বিন, ১৪২৯

সর্বোচ্চ রান করেও বাংলাদেশের হার

সংবাদমেইল২৪ | বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | প্রিন্ট  

সর্বোচ্চ রান করেও বাংলাদেশের হার

ক্রীড়া প্রতিনিধি:

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ইতিহাসে নিজেদের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলেও জিততে পারলো না বাংলাদেশ। ত্রিদেশীয় ও টেস্ট সিরিজ হারের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে বোলিং ব্যর্থতায় হেরেছে স্বাগতিক দল।


বৃহস্পতিবার মিরপুরে ১৯৩ রান করেও শ্রীলঙ্কার সাথে ৬ উইকেটের বড় পরাজয়। ১৯৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১৬.৪ ওভারে চার উইকেটেই এ রান তোলে হাথুরুর দলটি। সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচটি আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি সিলেটে অনুষ্ঠিত হবে।

বিশাল রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ওপেনিং জুটিতেই ঝড় তোলেন কুশল মেন্ডিস ও গুনাথিলকা। ৪.৫ ওভারে দলীয় ৫৩ রানে অভিষিক্ত নাজমুল ইসলাম অপু বলে স্ট্যাম্পিং হয়ে সাজঘরে ফেরেন গুনাথিলাকা। ১৫ বলে ৩০ রান করেন তিনি। শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় উইকেট জুটি ভাঙে দলীয় ৯০ রানে। মাত্র ২৭ বলে আট বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় মেন্ডিস ৫৩ রান করে আফিফের বলে সৌম্যর তালুবন্দী হন।


এরপর উপল থারাঙ্গা ৪ ও ডিকভেলা ১১ রান করে ফেরেন। ১১.৪ ওভারে চার উইকেটে শ্রীলঙ্কার দলীয় রান তখন ১২৯। শেষ মুহূর্তে দাসুন শানাকা ও থিসারা পেরেরা ব্যাটিং ঝড় তোলেন। শানাকা ২৪ বলে ৪২ ও পেরেরা ১৮ বেল ৩৯ রানে অপরাজিত থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন।

এদিন বোলিংয়ে ব্যর্থ হয়েছেন দেশ সেরা পেসাররা। সাইফউদ্দিন মাত্র ২ ওভারেই বিনা উইকেটে দেন ৩৩ রান। রুবেল ৩.৪ ওভারে ৫২ রান দিয়ে নিয়েছেন মাত্র একটি উইকেট। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এদিন অভিষিক্তরাই ভালো বোলিং করেছেন। নাজমুল ইসলাম অপু ৪ ওভারে ২৫ রানে দুটি ও আফিফ হোসেন ২ ওভারে ২৬ রানে একটি উইকেট নেন।


এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মিরপুরে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটিংয়ে তাণ্ডব দেখিয়েছে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। নির্ধারিত ২০ ওভারে বাংলাদেশ ৫ উকেটে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে। লঙ্কানদের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টির ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিং উপহার দিয়েছেন মুশফিকুর রহিম ও সৌস্য সরকার।

তাদের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস গড়েছে টাইগাররা। এর আগে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান ছিল ২০১২ সালে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ৫ উইকেটে ১৯০। এছাড়া শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এটি বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। ২০১৩ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৭ উইকেটে ১৮১ রান করেছিল মুশফিকরা।

অফ ফর্মে থাকায় ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজ ও টেস্ট সিরিজে দলে ছিলেন ওপেনার সৌম্য সরকার। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে ফিরেই ব্যাটিং ঝড় তুলেছেন ২৪ বছর বয়সী এই বাঁহাতি ওপেনার। ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ৩০ বলে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে প্রথম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। এতে ছয়টি বাউন্ডারি দুটি ছক্কার মার রয়েছে।

বাংলাদেশের দলীয় রান তখন ৯.২ ওভারে এক উইকেটে বাংলাদেশের দলীয় রান তখন ৯৮। মুশফিকুর রহিমকে সাথে নিয়ে ক্যারিয়ারের প্রথম হাফ সেঞ্চুরির পর ব্যক্তিগত ৫১ রানে দলীয় ১০০ রানের মাথায় মেন্ডিসের বলে এলিবিডাব্লিউর ফাঁদে পড়ে পায়ে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়ের সৌম্য।

অভিষিক্ত জাকির ১০ ও সৌম্য ৫১ রানে ফিরে গেলে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে সাথে নিয়ে ব্যাটিংয়ে ঝড় তুলেছেন মুশফিকুর রহিম। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিং উপহারের দিয়ে ৩৭ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন তিনি। একই সাথে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও ব্যাটিং ঝড় তোলেন।

১৫ ওভারেই দলীয় রান দেড়শ ছাড়িয়ে যায়। দারুণ ব্যাটিং উপহার দিয়ে ১৮.২ ওভারে দলীয় ১৭৩ রানে ব্যক্তিগত ৪৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন রিয়াদ। ৩১ বলে দুই বাউন্ডারি ও দুটি ছক্কায় এ রান করেন। এরপর সাব্বির ১ রান করে পেরার বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন। কিন্তু মুশফিকুর রহিম ৪৪ বলে সাত বাউন্ডারি ও একটি বিশাল ছক্কায় ৬৬ রান করে অপরাজিত থাকেন। অভিষিক্ত আরিফুল হক ১ রানে অপরাজিত।

সংবাদমেইল/জেএইচজে

Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ১১:৪০ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত