সোমবার ৬ ডিসেম্বর, ২০২১ | ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

রাজশাহীতে ওয়াসার পানিতে ক্ষতিকর কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়া

অনলাইন ডেস্ক : | শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর ২০২১ | প্রিন্ট  

রাজশাহীতে ওয়াসার পানিতে ক্ষতিকর কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়া

রাজশাহী ওয়াসার সরবরাহকৃত পানিতে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর ‘কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। সম্প্রতি জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উদ্যোগে রাজশাহী ওয়াসার পানি সরবরাহের ১০৪টি পয়েন্টে পানির গুণগত মান পরীক্ষায় এ ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি পাওয়া যায়।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, নগরীর শিরোইল, কুমারপাড়া ওয়ার্ড কার্যালয়, শেখের চক পাম্পের দক্ষিণ দিকের নদীর পাড়, হাদির মোড় বাজেকাজলা মহল্লা, রামচন্দ্রপুর পাম্প, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাচীর সংলগ্ন হাজিরমোড়, বোয়ালিয়াপাড়া, আসাম কলোনি বৌবাজার, মথুরডাঙ্গা মোড়, খ্রিস্টানপাড়া মোড়, উপশহর নিউ মার্কেট মোড়, মিয়াপাড়া ধর্মসভা, কাজীহাটা সংরক্ষিত কাউন্সিলারের বাড়ি, লহ্মীপুর বাকির মোড়, পিটিআই মোড়, কেশবপুর কোর্টের আরবান ক্লিনিক, রহরমপুর মোড়, মোল্লাপাড়া কোর্ট সংলগ্ন পয়েন্টে ১০০ মিলিলিটার পানিতে এক হাজারের বেশি ‘কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়া’র উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এসব পয়েন্টে ফেসাল কলিফর্মও পাওয়া গেছে তিন থেকে সাড়ে ৫শ পর্যন্ত।
রাজশাহী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সিনিয়র রসায়নবিদ শফিকুল ইসলাম জানান, ‘নিরাপদ পানিতে কলিফর্মের উপস্থিতি শূন্য হবে। পানিতে যদি কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়া থাকে, সেটা পানের উপযোগী নয়। এ ব্যাকটেরিয়াযুক্ত পানি খেলে তাৎক্ষণিক পেটের অসুখ দেখা দিতে পারে। দীর্ঘ মেয়াদে গ্যাস্ট্রিক-আলসারসহ ক্যান্সারও হতে পারে। তবে পানিতে এ ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি পাওয়া গেলে ব্লিচিং পাউডারের মাধ্যমে শোধন করে পান উপযোগী করা যাবে।
তিনি আরও জানান, রাজশাহী শহরজুড়ে নির্মাণকাজ চলছে। রাস্তা খুঁড়তে গিয়ে পাইপ ফেটে যায়। এগুলো হয়তো পলিথিন দিয়ে মুড়ে দেওয়া হয়। কোনোভাবে ওই পলিথিন ছিঁড়ে গেলেই সেখান দিয়ে সুয়ারেজ লাইনের পানি ওয়াসার পাইপলাইনে ঢুকে পড়ে। ওই পানিতে গবাদিপশু এমনকি মানুষের বর্জ্য মিশে থাকতে পারে। এ বর্জ্য থেকেই কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়া জন্ম নেয়।
রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নূর ইসলাম জানান, এ ব্যাপারে তারা বারবার ওয়াসাকে অবহিত করেছে। পানির পাইপ তিন ফুট নিচ দিয়ে বসাতে বলা হয়েছে। এর ওপরে থাকলে রাস্তা রোলার করার সময় পাইপ ফেটে যায়। এ জন্য চিঠিও দিয়েছেন তারা। তারপরও ঠিকাদাররা কোনও জায়গায় পাইপ ফাটার সঙ্গে সঙ্গে মেরামতের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে দিয়ে সহযোগিতা করে থাকেন।
এ বিষয়ে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. মাহবুবুর রহমান বাদশা জানান, কলিফর্ম ব্যাকটেরিয়া মূলত মানুষ ও পশু-পাখির বিষ্ঠা থেকে তৈরি হয়। এ ব্যাকটেরিয়া মিশ্রিত পানি খেলে তাৎক্ষণিক ডায়রিয়া ও বমিসহ পানিশূন্যতা তৈরি হতে পারে। খাওয়ার পানিতে এ ব্যাকটেরিয়ার কোনো সহনীয় মাত্রা নেই।
রাজশাহী ওয়াসার নির্বাহী প্রকৌশলী মাহাবুবুর রহমান জানান, তারা নিয়মিতই ওয়াসার পানি পরীক্ষা করেছেন। প্রতিকারে ব্যবস্থা নিয়েছেন। তাদের নিজস্ব পানি পরীক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে। তারপরও অধিকতর নিশ্চয়তার জন্য জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর থেকে পানি পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছেন।
২০১১ সাল থেকে রাজশাহী মহানগরীর পানি সরবরাহ করছে ওয়াসা। বর্তমানে শহরে দৈনিক পানির চাহিদা ১২৫ মিলিয়ন লিটার। এর বিপরীতে ওয়াসা দৈনিক ১০৪ মিলিয়ন লিটার পানি সরবরাহ করে। বাসাবাড়িতে খাবারের জন্য ওয়াসার পানি ব্যবহার তেমন না হলেও, নগরীর অধিকাংশ হোটেল-রেস্তোরায় ওয়াসার পানি পানের জন্য সরবরাহ করা হয়। এতে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছে মহানগরবাসী। সূত্র : ইত্তেফাক

Facebook Comments Box


Comments

comments

advertisement

Posted ৪:৫০ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর ২০২১

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত