রবিবার ২৩ জানুয়ারি, ২০২২ | ৯ মাঘ, ১৪২৮

মৌলভীবাজার থেকে রাজস্ব আয় ৯ লক্ষ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৬ | প্রিন্ট  

মৌলভীবাজার থেকে রাজস্ব আয় ৯ লক্ষ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা

আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটার তালিকা সংযুক্ত সিডি বিক্রি করে ৬ জন চেয়ারম্যান, ৯২ জন সাধারণ সদস্য ও ২৩ জন সংরক্ষিত মহিলা প্রার্থীর কাছ থেকে মৌলভীবাজার জেলায় সরকারের রাজস্ব বাবত আয় হয়েছে ৯ লক্ষ ১৮ হাজার ৫০০ টাকা।

নির্বাচন অফিস সূত্রে মতে, নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র সংগ্রহের সময় চেয়ারম্যানদের ৫৬ হাজার, সাধারণ সদস্য এলাকা বেধে প্রতি ইউনিয়ন প্রতি ৫”শত টাকা এবং পৌরসভার ওয়ার্ড প্রতি ৫”শত টাকা হারে ও সংরক্ষিত মহিলা প্রার্থীদের ক্ষেত্রেও পুরুষ সদস্যদের ন্যায় একই হারে ভোটার তালিকা সংযুক্ত সিডি ক্রয় করতে হয়েছে। নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দানকারী ৬ জন চেয়ারম্যান, ৯২ জন সাধারণ সদস্য ও ২৩ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্যের কাছ থেকে সরকারের রাজস্ব ভাবত আয় হয়েছে ৯ লক্ষ ১৮ হাজার ৫”শত টাকা।


জানা যায়, ১নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা মিলে ৫ জন প্রার্থীর কাছ থেকে জন প্রতি ৬হাজার ৫ শত টাকা হারে আয় হয়েছে ৩২ হাজার ৫”শত টাকা। ২নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়নে ৬ জন প্রার্থীর কাছ থেকে জন প্রতি ২ হাজার হরে আয় হয়েছে ১২ হাজার টাকা। ৩নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়নে ৫ জন প্রার্থীর কাছ থেকে জন প্রতি ২ হাজার হারে আয় হয়েছে ১০ হাজার টাকা। ১, ২, ৩ নং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ওয়ার্ডে জন প্রতি ১০হাজার ৫শত টাকা হারে ২ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ২১ হাজার টাকা। ৪নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়নে ৬ জন প্রার্থীর কাছ থেকে জন প্রতি  ২ হাজার হারে আয় হয়েছে ১২ হাজার টাকা। ৫নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ৯ জন প্রার্থীর কাছ থেকে জন প্রতি ২ হাজার ৫ শত টাকা করে আয় হয়েছে ২২ হাজার ৫ শত টাকা। ৬নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ৬ হাজার ৫ শত টাকা করে ৬ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ৩৯ হাজার টাকা। ৪, ৫, ৬নং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ওয়ার্ড ১১ হাজার করে ৭ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ৭৭ হাজার টাকা। ৭নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫ শত টাকা করে ৭ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ১৭ হাজার ৫ শত টাকা। ৮নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫ শত টাকা করে ৮ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ২০ হাজার টাকা। ৯নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫ শত টাকা করে ৮ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ২০ হাজার টাকা। ৭, ৮, ৯নং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ওয়ার্ডে ৩ জন প্রার্থীর কাছ থেকে ৭ হাজার ৫ শত টাকা হারে আয় হয়েছে ২২ হাজার ৫শত টাকা। ১০নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ৬ হাজার ৫ শত টাকা করে ৪ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ২৬ হাজার টাকা। ১১নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫ শত টাকা করে ৩ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ৭ হাজার ৫ শত টাকা। ১২নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় ৬ হাজার ৫ শত টাকা করে ৮ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ৫২ হাজার টাকা। ১০, ১১, ১২নং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ওয়ার্ডে ১৫ হাজার ৫ শত টাকা করে ৫ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ৭৭ হাজার ৫ শত টাকা। ১৩নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫ শত টাকা করে ৬ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ১৫ হাজার টাকা। ১৪নং ওয়ার্ডে ৪টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা মিলে ৬ হাজার ৫ শত টাকা করে ৩ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ১৯ হাজার ৫ শত টাকা। ১৫নং ওয়ার্ডে ৫টি ইউনিয়নে ২ হাজার ৫ শত টাকা করে ৪ জন প্রার্থীর কাছ থেকে আয় হয়েছে ১০ হাজার টাকা। ১৩, ১৪, ১৫নং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ওয়ার্ডে ৬ জন  প্রার্থীর কাছ থেকে  ১১ হাজার ৫ শত টাকা হরে আয় হয়েছে ৬৯ হাজার টাকা।

সংবাদমেইল২৪.কম/এসএ/এনএস


 

Facebook Comments Box


Comments

comments

advertisement

Posted ৫:১৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০১৬

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত