সোমবার ২৯ নভেম্বর, ২০২১ | ১৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

ব্রিটিশ তরুণীদের নতুন আতঙ্ক বিষাক্ত সুচ!

বহির্বিশ্ব সংবাদ : | মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১ | প্রিন্ট  

ব্রিটিশ তরুণীদের নতুন আতঙ্ক বিষাক্ত সুচ!

গত এক বছর ধরেই ব্রিটেনে তরুণীদের ওপর সহিংসতা বেড়েছে উদ্বেগজনক হারে। অপহরণ, খুন এসবই এখন দেশটির বড় ইস্যু। এমনকি বিভিন্ন স্থানে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদও হচ্ছে। নাইট ক্লাব কিংবা রাতে ঘুরতে বের হওয়া উঠতি বয়সী মেয়েদের টার্গেট করে এমন হামলা চালানোর নেপথ্যে কেউ দায়ী করছেন সম্প্রতি মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা করোনাপরবর্তী অপসংস্কৃতিকে।

অতিসম্প্রতি লিজি উইলসন নামের এক তরুণী নটিংহ্যামের একটি নাইট ক্লাবের সামনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। হঠাৎ পিঠে সূক্ষ্ম একটা ব্যথা টের পেলেন। বুঝতে পারলেন কেউ একজন সুচ বিঁধিয়েছে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই আততায়ী চলে গেল আড়ালে। মিনিট দশেক পরই উইলসন টের পেলেন তিনি পা নাড়াতে পারছেন না। টলতে টলতে কোনোমতে ডাক দিলেন বন্ধুদের। তারাই এগিয়ে এসে উদ্ধার করেন তাকে।


উইলসন আগে থেকেই জানতেন তরুণীদের টার্গেট করে ইদানিং ক্লাবগুলোর আশপাশে এভাবে চেতনানাশক ইনজেকশন পুশ করা হচ্ছে। তাই দেরি না করে বন্ধুদের বললেন, দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে। কারণ তিনি জানেন, একটু পরই তার পুরো শরীর অবশ হয়ে পড়বে। ‘এমন পরিস্থিতিতে কাউকেই যেন যেতে না হয়।’ নটিংহ্যামের কলেজপড়ুয়া উইলসন জানালেন নিউ ইয়র্ক টাইমসকে। বললেন, ‘আমার মনে হচ্ছিল, আমার নিজের ওপর কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।’

এর আগে কিশোরী ও তরুণীদের গায়ে এভাবে সুচ ফোটানোর বিষয়টি ছিল বিচ্ছিন্ন ঘটনা। এখন একই ধরনের ভিকটিমের সংখ্যা বাড়ছেই। শুধু নটিংহ্যাম্পশায়ারেই সম্প্রতি এমন ১২টি ঘটনা ঘটেছে। স্কটল্যান্ডের পুলিশের কাছেও আসছে এমন ঘটনার অভিযোগ। স্পাইকিংয়ের শিকার তরুণীরা বেশি হলেও কিছু তরুণও এমন ঘটনার শিকার হয়েছেন। নটিংহ্যাম্পশায়ার পুলিশ বলছে, ইনজেকশন পুশ করেই সটকে পড়ছে আততায়ী। এখন পর্যন্ত এমন কোনো ঘটনার সঙ্গে কোনো ধরনের যৌন নির্যাতনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি। আততায়ীরা মূলত নাইট ক্লাবগুলোকে টার্গেট করেই এ কাজটা করছে।


উন্মুক্ত স্থানেও ঘটেছে স্পাইকিংয়ের ঘটনা। নারী অধিকার নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করছেন নটিংহ্যাম্পশায়ারের সাবেক পুলিশ প্রধান সু ফিশ। তিনি জানালেন, ‘আচরণের এরচেয়ে অবনতির কথা ভাবা যায় না। এমন ঘটনার শেকড় আরও গভীরে গাঁথা।’ ইউনিভার্সিটি অব লিভারপুলের অধ্যাপক ও সেখানকার অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ফিয়োনা মিশাম জানালেন, ‘জাতীয় পর্যায়ে প্রতি বছরই কয়েকশ স্পাইকিংয়ের ঘটনা ঘটে থাকে। এর ঝুঁকি এখনো কম হলেও প্রতিটি অভিযোগকেই গুরুত্ব দিয়ে আলাদাভাবে তদন্ত করতে হবে। আমার মনে হয় এখানে ভীতিটা কাজ করছে বেশি। নাইট ক্লাবগুলোর প্রতি ক্ষোভটাও এড়িয়ে যাওয়া যাচ্ছে না।’

Facebook Comments Box


Comments

comments

advertisement

Posted ৭:২২ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত