মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর, ২০২১ | ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও বাংলাদেশ অগ্রগতিতে প্রশংসা

অনলাইন ডেস্ক : | রবিবার, ২১ নভেম্বর ২০২১ | প্রিন্ট  

বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও বাংলাদেশ অগ্রগতিতে প্রশংসা

করোনা মহামারি এবং রোহিঙ্গা সংকটসহ বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশ যে চিত্তাকর্ষক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নথিভুক্ত করেছে তার প্রশংসা করেছেন ওয়াশিংটন ডিসিতে অনুষ্ঠিত ওয়েবিনারে অনুষ্ঠানের বক্তারা। ওয়াশিংটন ডিসিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের অংশীদারিত্বে বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) নেতৃস্থানীয় মার্কিন থিঙ্ক ট্যাঙ্ক আটলান্টিক কাউন্সিল দ্বারা “আঞ্চলিক অর্থনৈতিক সহযোগিতার বিষয়ে বাংলাদেশি দৃষ্টিভঙ্গি” শীর্ষক ওয়েবিনারটি আয়োজন করা হয়।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম অনুষ্ঠানের বিষয়বস্তুর ওপর একটি মূল বক্তব্য প্রদান করেন এবং একটি সংযত আলোচনা এবং একটি প্রশ্নোত্তর সেশনে অংশ নেন। আটলান্টিক কাউন্সিলের দক্ষিণ এশিয়া কেন্দ্রের সিনিয়র উপদেষ্টা এবং ফিজিতে সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত ওসমান সিদ্দিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন।
রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম তার বক্তব্যে এ অঞ্চলে অর্থনৈতিক সহযোগিতা এবং জনগণের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধির জন্য দেশকে দক্ষিণ এশিয়ায় একটি সংযোগ কেন্দ্রে রূপান্তর করার জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিভঙ্গির কথা বলেন।
তিনি বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, কোভিড-১৯ সহযোগিতা এবং জলবায়ু পরিবর্তনের মতো ক্ষেত্রে আঞ্চলিক দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশের সক্রিয় ভূমিকার কথাও তুলে ধরেন। রাষ্ট্রদূত দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনৈতিক একীকরণকে উন্নীত করার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য ভূমিকা এবং প্রাসঙ্গিকতা সম্পর্কেও তার চিন্তাভাবনা শেয়ার করেছেন।
প্রশ্নোত্তর পর্বে রাষ্ট্রদূত শহীদুল ইসলাম কোয়াড, আরসিইপি, এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে মুক্ত-বাণিজ্য অঞ্চল, তিস্তার পানি বণ্টন এবং বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে সীমান্ত হত্যা ইত্যাদি বিষয়ে মডারেটর ও দর্শকদের প্রশ্নের জবাব দেন।
এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত উল্লেখ করেন যে, বাংলাদেশ যে কোনো আঞ্চলিক উদ্যোগকে স্বাগত জানায়; যা তার উন্নয়ন আকাঙ্খাকে সমর্থন করে এবং এ অঞ্চল এবং এর বাইরেও বৃহত্তর মঙ্গল বয়ে আনে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ তার প্রতিবেশীসহ বিশ্বের সব দেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখে এবং যে কোনো দ্বিপাক্ষিক সমস্যা আলোচনা ও আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে বিশ্বাস করে। আলোচনাকালে রাষ্ট্রদূত রোহিঙ্গা সংকটকে এ অঞ্চলের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে অভিহিত করেন; যা দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অর্থনীতির বৃহত্তর একীকরণের পথে দাঁড়িয়েছে।
সমাপনী বক্তব্যে মডারেটর ওসমান সিদ্দিক অতীত ও বর্তমানের মধ্যে কিছু অর্থনৈতিক সূচকের তুলনা করে স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন।
বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শহিদুল ইসলাম ২৭ অক্টোবর আটলান্টিক কাউন্সিল আয়োজিত রোহিঙ্গা ইস্যুতে অনুরূপ একটি ওয়েবিনারে অংশ নিয়েছিলেন।

Facebook Comments Box


Comments

comments

advertisement

Posted ৭:৫৪ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ২১ নভেম্বর ২০২১

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত