সোমবার ২৯ নভেম্বর, ২০২১ | ১৪ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র পেল নিউইয়র্কবাসী

অনলাইন ডেস্ক : | বুধবার, ০৩ নভেম্বর ২০২১ | প্রিন্ট  

দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র পেল নিউইয়র্কবাসী

নিউইয়র্ক সিটির ১১০তম মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হলেন ডেমোক্রেটিক দলের এরিক অ্যাডামস। তিনি হচ্ছেন একজন কৃষ্ণাঙ্গ। তিনি নির্বাচিত হওয়ায় প্রায় ২৮ বছর পর নিউইয়র্কবাসী আবার একজন কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র পেয়েছে। এরিক অ্যাডামস দ্বিতীয় কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র। এর আগে শহরটির ১০৬তম ও প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ মেয়র ছিলেন ডেভিড এন ডিনকিন্স। এরিক অ্যাডামস নিউইয়র্ক সিটির সাবেক পুলিশ ক্যাপ্টেন। তিনি ব্রুকলিন বরো প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনের আগে রাজ্য সিনেটর হিসেবেও নির্বাচিত হয়েছিলেন।

মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত সিটি নির্বাচনে তার রিপাবলিকান প্রতিপক্ষ কার্টিস স্লিওয়ারকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন এরিক। জয়ের পর এরিক এক বক্তব্যে বলেন, আমরা এখন অনেক বিভক্ত। আমাদের সবাইকে একত্রিত হয়ে কাজ করতে হবে।


জাতিগত ন্যায়বিচারের প্রতি এরিকের গভীর মনোযোগ ছিল। তিনি মধ্যপন্থী ডেমোক্র্যাট হিসেবে পরিচিত। সাম্প্রতিক নাগরিক আন্দোলনে পুলিশের তহবিল কর্তনের বিরোধিতাও করেছিলেন তিনি।  ধারণা করা হচ্ছে, তার নেতৃত্বে পুলিশ ও নাগরিক আন্দোলন সংগঠনের সমন্বয়ে সহজে অপরাধ দমনে কাজ করা যাবে।  এছাড়াও কৃষ্ণাঙ্গদের পক্ষ থেকে বর্ণবৈষম্যের অভিযোগও তিনি মোকাবিলা করতে পারবেন।

নির্বাচিত হওয়ার পর এরিক নিউইয়র্কবাসীদের একত্রিত হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘আমরা এখন অনেক বিভক্ত। আমরা আমাদের বৈচিত্র্যের সৌন্দর্য হারিয়ে ফেলছি। তাই সবাইকে একত্রিত হয়ে কাজ করতে হবে। আজ আমরা অন্তর্মুখী জার্সি খুলে ফেলে একটি নতুন জার্সি পরলাম। যার নাম টিম নিউইয়র্ক।’


অ্যাডামস আগামী ১ জানুয়ারিতে মেয়র হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। এই দায়িত্ব গ্রহণের মধ্য দিয়ে তিনি একটি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হচ্ছেন। যখন দেশের বৃহত্তম শহরটি করোনা মহামারি পরবর্তী অবস্থার সঙ্গে লড়াই করছে। তার এই বিজয় মধ্য-বাম গণতান্ত্রিক নেতৃত্বের সূচনার সংকেত দেয়। কেননা তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যে শ্রমজীবী এবং মধ্যবিত্ত ভোটারদের চাহিদা প্রতিফলিত করবে।

ভার্জিনিয়ায় রিপাবলিকান প্রার্থী গ্লেন ইয়োনকিন


এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের পরবর্তী গভর্নর নির্বাচিত হয়েছেন রিপাবলিকান প্রার্থী গ্লেন ইয়োনকিন। ৯৯ শতাংশ ভোট গণনা শেষে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী টেরি ম্যাকআলফির চেয়ে তিনি ২.৭ পয়েন্টে এগিয়ে থেকে তিনি জয়ী হন।  গ্লেন ইয়োনকিনের জয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শিবিরের জন্য একটি বড় আঘাত বলে মনে করেছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। নির্বাচনে হেরে যাওয়া ডেমোক্র্যাট প্রার্থী টেরি ম্যাকআলফি ২০১৪ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ভার্জিনিয়ার গভর্নরের দায়িত্ব পালন করেন। নির্বাচনের আগে হওয়া জনমত জরিপেও এগিয়ে ছিলেন তিনি। তবে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে গ্লেন ইয়োনকিনের সঙ্গে  তার ব্যবধান কমতে থাকে।

মঙ্গলবার উল্লাসরত সমর্থকদের উদ্দেশে রিপাবলিকান প্রার্থী গ্লেন ইয়োনকিন এই বিজয়কে স্মরণীয় আখ্যা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘একসঙ্গে আমরা এই কমনওয়েলথের গতিপথ বদলে দেবো। আর বন্ধুরা, আমরা প্রথম দিন থেকে পরিবর্তনের কাজ শুরু করতে যাচ্ছি।’

Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ৯:১৯ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৩ নভেম্বর ২০২১

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত