মঙ্গলবার ৭ ডিসেম্বর, ২০২১ | ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

ডালাস বাংলা উৎসবে পুরস্কৃত হলেন শিল্পী কাদেরী কিবরিয়া ও কবি কাজী জহির

প্রবাস ডেস্ক : | রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১ | প্রিন্ট  

ডালাস বাংলা উৎসবে পুরস্কৃত হলেন শিল্পী কাদেরী কিবরিয়া ও কবি কাজী জহির

যুক্তরাষ্ট্র : টেক্সাসের ডালাসের আর্ভিং আর্ট সেন্টারটি সেদিন হয়ে উঠেছিল এক টুকরো বাংলাদেশ। হেমন্তের রঙিন সন্ধ্যাটি উজ্জ্বল হয়ে ওঠে রঙবেরঙের শাড়ি, পাঞ্জাবি, ফতুয়া পরা বাঙালিদের পদচারণায়। হাইওয়ের ওপর বিলবোর্ডে লেখা ‘ডালাস বাংলা উৎসব’ দৃষ্টি কাড়ে নানান ভাষা ও জাতির মানুষের।

চমৎকার সেই আয়োজনে পুরস্কৃত করা হয় কীর্তিমান তিন বাঙালিকে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে পুরস্কার গ্রহণ করেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠযোদ্ধা ও বিশিষ্ট রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী কাদেরী কিবরিয়া, বিশিষ্ট কবি কাজী জহিরুল ইসলাম। তবে একুশে পদক বিজয়ী লেখক ও মুক্তিযোদ্ধা ড. নুরুন নবী উপস্থিত হতে না পারায়, তার পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন জালাল আহমেদ। আয়োজক প্রতিষ্ঠান সানাম টিভির প্রতিষ্ঠাতা এবং নির্বাহী প্রযোজক খন্দকার তৌফিক কাদের পূর্ব ঘোষিত ‘স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ২০২১’ তুলে দেন।


গত ১৬ অক্টোবর, শনিবার সন্ধ্যা ছয়টার একটু পরে শুরু হয় অনুষ্ঠান। আয়োজক প্রতিষ্ঠান সানাম টিভির প্রযোজক সাবেরা কাদের যখন স্পট লাইটের নিচে এসে দাঁড়ান, তখন সেখানে আনন্দঘন এক পরিবেশ। এর মধ্য দিয়ে শুরু হয় যায় ডালাস বাংলা উৎসব। দ্বিতীয় প্রজন্মের শিল্পীদের গান, কবিতা ও নাচের পারফর্মেন্সে মুগ্ধ দর্শকদের করতালি প্রমাণ করে দ্বিতীয় প্রজন্মের বাঙালি শিল্পীরা বাংলা সংস্কৃতির চর্চায় একটুও পিছিয়ে নেই।

শুরুতেই ঐশী ‘কফি হাউজের আড্ডাটা’ গেয়ে দর্শকদের মন জয় করে নেন। দুই ভাই আলভি ও জারিফ পরিবেশন করে ‘রাঙামাটির রঙে’। ওয়াফি গায় ‘আমি তোমাকেই বলে দেব’। নোভা এবং নোরা দ্বৈত নাচ প্রদর্শন করে ‘আজ ধানের ক্ষেতে’ রবীন্দ্রসঙ্গীতের সঙ্গে।  অহনা জয় গোস্বামীর ‘মেঘবালিকা’ কবিতা আবৃত্তি করে সবাইকে মুগ্ধ করে। তাহিয়ার ভারতনাট্যমের নৃত্য-মূর্ছনাগুলো ছিল দেখার মতো। ডালাসের স্থানীর বাঙালি শিল্পীরা অসাধারণ গান করেন এবং কবিতা আবৃত্তি করেন। গান করেন ফারহানা হোসেন লিপি, মাফিয়া রহমান, লিমন রশিদ, নাসরীন রেজা। পল্লি কবি জসীম উদদীনের ‘নিমন্ত্রণ’ কবিতাটি আবৃত্তি করেন সাবিরা কেয়া।


অনুষ্ঠানের অন্যতম আকর্ষণ কবি কাজী জহিরুল ইসলাম নিজের লেখা চারটি কবিতা ‘পা’, ‘রাত্রিকে আলো দিও’, ‘নষ্ট হবে?’ এবং ‘বাড়ি আছ?’ পড়ে শোনান।  প্রতিটি কবিতা পাঠের আগে তিনি নিজের অভিজ্ঞতা থেকে কিছু মানবিক ও দার্শনিক বক্তব্য উপস্থাপন করেন; যা দর্শকরা ব্যাপক করতালির মাধ্যমে গ্রহণ করে। কবি ‘বাড়ি আছ?’ কবিতাটি পাঠের সময় কবি মঞ্চে ডেকে নেন তার স্ত্রী মুক্তি জহিরকে। তখন সেখানে চমৎকার একটি আবহ তৈরি হয়।

স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী ও বিশিষ্ট রবীন্দ্র সঙ্গীতের কিংবদন্তী গায়ক কাদেরী কিবরিয়া ওঠেন মঞ্চে। প্রিয় শিল্পীর গান শুনতে পেরে দর্শকরাও মোহিত হন। তিনি একে একে বেশ কয়েকটি গান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ফারহানা রেজা।


Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ১১:৪৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত