সোমবার ৬ ডিসেম্বর, ২০২১ | ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৮

কুলাউড়া সমিতি ইউকে’র বর্ণাঢ্য অভিষেক ঈদ পূণর্মিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

বিশেষ প্রতিনিধি,সংবাদমেইল২৪.কম | রবিবার, ১৬ জুলাই ২০১৭ | প্রিন্ট  

কুলাউড়া সমিতি ইউকে’র বর্ণাঢ্য অভিষেক ঈদ পূণর্মিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

কুলাউড়া সমিতি ইউকে কর্তৃক আয়োজিত বর্ণাঢ্য অভিষেক, রাফেল ড্র, ঈদ পুনর্মিলনী ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান গত ৯ জুলাই শনিবার দুপুরে লন্ডনস্থ ব্রাডি আর্টস এন্ড কমিউনিটি সেন্টারের থিয়েটারে সূধীজন, প্রধান ও বিশেষ অতিথিগনকে অভ্যর্থনার পর, দুপুর একটা ৩০ মিনিট থেকে দুইটা ৩০ মিনিট পর্যন্ত আমন্ত্রিতদের মধ্যাহ্নভোজ সম্পন্ন হলে জসিম উদ্দিন চৌধুরীর কোরান তেলাওয়াত দিয়ে অনুষ্ঠান মালার সূচনা হয়।

অভিষেক  মোহাম্মদ আজিজ অভিষেক অনুষ্ঠান নিয়ে একটি সুন্দর ভূমিকা প্রদান করেন এবং একই সংগে বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কথা ও সুরে “ও ভাই খাঁটি সোনার চেয়ে খাঁটি…দেশাত্মবোধক সংগীতটি মঞ্চের নেপথ্যে সমবেত কন্ঠ থেকে অনুষ্ঠানের আবেগ আনন্দের আকাশ ভেদ করে অনুষ্ঠানের মূল্যবোধে যুক্ত হয় উজ্জীবিত চিত্রনাট্যের মতো এক মহাকাব্য।


কুলাউড়া সমিতির ২০১৭-১৮ থেকে ২০১৮-১৯ ইং পর্যন্ত কার্যনির্বাহী কমিটি গঠন প্রক্রিয়ায় জড়িত সাদেক আহমদ সামু, সিতাব চৌধুরী, শাহ নূর খান, জসিম উদ্দিন চৌধুরীসহ আব্দুল বাছিত চৌধুরী মঞ্চে এসে উপস্থিত হন এবং পূর্ণাঙ্গ নতুন কমিটির পদ পদবি সহ নাম ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশনের পক্ষে শাহ নূর খান ও সাদেক আহমদ সামু।

এসময় ক’জন শিশু কিশোরদের মাধ্যমে নবীন কমিটির প্রত্যেক সদস্যদেরকে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে বরন করা হয়। ২০১৭-১৮ থেকে ২০১৮-১৯ সাল পর্যন্ত ১৭ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরী কমিটিতে-সভাপতি-আলহাজ্জ্ব মোস্তফা আব্দুল মালিক, সিনিয়র সহ-সভাপতি এমাদুল মান্নান চৌধুরী তারহাম, সহ-সভাপতি জাহিদ হোসেন চৌধুরী, আলহাজ্জ্ব আব্দুল হান্নান, ফরহাদ আলম হিরুল ও রুহুল আনোয়ার চৌধুরী ফুরুক, সাধারণ সম্পাদক আবুল লেইছ মুন্সী, যুগ্ম-সাধারণ  সম্পাদক শাহীন আহমদ চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ সামসুল আলম চৌধুরী টিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক জহির উদ্দিন চৌধুরী দিদার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিসেস সালমা বেগম, মহিলা সম্পাদক মিসেস রেজিনা বেগম,  ক্রীড়া সম্পাদক মুহিবুর রহমান সুফিয়ান, কমিটি সদস্যরা হলেন, আক্তার হোসেন কাজল, সৈয়দ রুবেল, নাঈম চৌধুরী, নূরুল আবছার, আবু তাহের আহাদ।


ঈদ পূণর্মিলনী ও আলোচনা সভা ঃ ঈদ পূণর্মিলণী উৎসব বরণ আলোচনা সভায় নবীন সাধারণ সম্পাদক আবুল লেইছ মুন্সি অনুষ্ঠানের ভূমিকা দিয়ে আলোচনা পর্বের প্রাক্কালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কথা ও সুরে ‘অমর ঈদ আনন্দের “ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে” সংগীতটি শিল্পীদের কণ্ঠের সাথে উপস্থিত অতিথি ও সূধীজন সকলে শিল্পীদের কণ্ঠের সাথে নিজের কন্ঠ মিলিয়ে গাইলেন অপূর্ব এক উৎসবের আমেজে। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নবীন সভাপতি আলহাজ্জ্ব মোস্তফা আব্দুল মালিক। প্রধান অতিথি ছিলেন লন্ডনে বাঙালিদের রাজনৈতিক বিকাশের আলোকিত তীর্থস্থান টাওয়াার হেলমেটস এর সম্মানিত মেয়র গৎ.ঔযড়হ ইরমমং ।

বিশেষ অতিথিগনের মধ্যে ছিলেন মিসেস শাহেদা চৌধুরী, চ্যানেল এস এর সংবাদ মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ড. জাকি রেজওয়ানা আনোয়ার, টাওয়ার হেলমেটসের স্পিকার সাবিনা আক্তার, প্রধান  অতিথি মি. জন বিগ্স তাঁর বক্তব্যে বলেন, “আপনাদের ভোট ও ভালবাসায় আমি মেয়র, আপনাদের ধর্মীয় বা সাংস্কৃতিক বা সামাজিক অনুষ্ঠানে আসলে আমাকে ভাগ্যবান মনে হয়”। সভাপতির সমাপনী বক্তৃতায় বলেন, “আমাকে ঋনী করলেন, আমাকে আরো উদ্যমী করলেন, আপনাদের সহযোগিতা কুলাউড়া সমিতি মনে রাখবে আজীবন। সবাইকে অনেক ধন্যবাদ”। আলোচনার ফাঁকে ফাঁকে সাধারণ সম্পাদক আবুল লেইছ মুন্সী নিজের বক্তৃতায় বলেন, “আমাদের লক্ষ্য একটি আদর্শ শক্তিমান কুলাউড়া সমিতি গড়ে তুলা, যেখানে শ্রদ্ধার মধ্যে থাকবে একে অন্যের স্নেহ মমতা প্রকাশ, আপনাদের সহযোগিতা থাকলে অবশ্যই তা সম্ভব”।


আলোচনায় অংশ নেন, শাহীন আহমদ চৌধুরী, রুহুল আনোয়ার চৌধুরী ফুরুক, আলহাজ্জ্ব আব্দুল মুনিম, ছয়ফুল হোসেন, মুজাহিদ আলী চৌধুরী, শাহ নূর খান, এমাদুল মান্নান চৌধুরী, কেফায়েত হুসেন খান, শওকতুল  ইসলাম সকু, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সিতাব চৌধুরী, সাদেক আহমদ সামু, শ্রীযুক্ত মানিক দেব, মহিউদ্দীন চৌধুরী, সামসুল আলম চৌধুরী, আলহাজ্জ্ব আব্দুল হান্নান, মাহবুবুর রহমান জাহিদ চৌধুরী, অধ্যাপক আব্দুল আহাদ, নূরুল আবছার, মিসেস সালমা বেগম, মিস্ দিনা আজিজ ও মিসেস রিজিনা বেগম প্রমূখ।

আলোচনা সমাপ্তের পর জসিম উদ্দিন চৌধুরী, সামসুল আলম চৌধুরী ও আক্তার হোসেন কাজলের সমন্বিত তত্ত্বাবধানে সফল ভাবে রাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়।

বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান “সুদূর প্রবাস জীবনে কয়েক প্রজন্মের বসবাস আমাদের। দেশের স্বজনদের জন্য, দেশের মাটি ও মানুষের জন্য, আত্মোৎসর্গী হওয়ার মানসিকতা আমাদের শত জনমের। ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। এক একটি ঋতুতে, এক এক রূপ। রূপ শুধু ঝরে ঝরে পড়ে। মাটিতেই মায়াবী শ্যামলতা। আদিগন্ত সবুজে ছাওয়া, হলুদ শস্যের গান বাজে বাতাসে বাতাসে। এত রং। এত রূপ। সকালে দুপুরে। সন্ধ্যা ও রাতে। ছয় ঋতু। বার মাসে শত শত রূপে, কত বারই না সাঝে, অপূর্বা রূপসী পল্লী আমাদের। ভালবাসা স্নেহ মায়া আর প্রকৃতি ও সংস্কৃতির টানে ক্ষুদ্র আয়োজন এই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান”। সঞ্চালক মোহাম্মদ  আজিজের উপস্থাপনে কাজী নজরুল ইসলাম রচিত ও সুরারূপিত দেশাত্মবোধক গান “একি অপরুপ রূপে মা তোমার, হেরিনু পল্লী জননী” দিয়ে আরম্ভ হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। কবি শামসুর রাহমানের “তোমার জন্য হে স্বাধীনতা” কবিতাটি বৈপ্লবিক ভাব অন্বেষণে আবৃত্তি করলেন সংবাদ মিডিয়া ব্যক্তিত্ব বাচিক শিল্পী মনিরা পারভীন। তারপর সঞ্চালকের মধুর আহ্বানে ব্রাডি আর্টস এন্ড কমিউনিটি সেন্টারের থিয়েটার মঞ্চে যন্ত্র শিল্পীদের বাদ্য যন্ত্রের সংগত নিয়ে শিল্পী বাপ্পিতা গাইলেন বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের দেশপ্রেমের সংগীত” ও আমার দেশের মাটি”। এভাবেই পুরো থিয়েটার গৃহ, গানে গানে গভীর মুগ্ধতায় এক সম্মোহিত শ্রুতিমধুর উৎসবের পরিবেশ তৈরী হয়। ধারাবাহিক ভাবে শিল্পী বাপ্পিতা ও জি.এইচ. রাসেল দ্বৈত কন্ঠে, “ময়ূর কন্ঠী রাতেও নীলে…..”। “যেটুকু সময় তুমি থাকো কাছে”। “তোমার বাড়ীর রঙের মেলায়”। “কি জ্বালা দিয়ে গেলি মোরে”। “সব সখিরে পার করিতে”- গান গুলো গেয়ে দর্শক মনে মোহনীয় বৃষ্টি ঝরালেন। তারপর শিল্পী প্রপা রেজওয়ানা পর পর “মায়া লাগাইছে পিরীতি শিখাইছে”, “লোকে বলে বলেরে, ঘর বাড়ী বালা নায় আমার”, “খাঁচার ভিতর  অচিন পাখি কেমনে আসে যায়” তিনটি  গান গাইলেন। শিল্পী বাপ্পিতা গাইলেন,-  “নাও ছাইড়া দে পাল উড়াইয়া দে”। “বাঁশি শুনে আর কাজ নাই”। “সাধের লাউ বানাইল মোরে বৈরাগী”। একে একে “তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে”।  “একতারা বাজাইও না”। “নিশীতে যাইও ফুল বনে রে ভ্রমরা”  বিখ্যাত গানগুলি নিয়ে গানে গানে এক মোহনীয় মুহূর্তের মধ্যে শিল্পীদের সাথে সবাই সম্মিলিত কন্ঠে গাইলেন “আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালবাসি”। গানের পারফরমেন্স টিমের কো-অর্ডিনেটর জি. এইচ. রাসেল  আলোর প্রক্ষেপণ, সাউন্ড সিস্টেম ও শব্দ নিয়ন্ত্রণসহ সব ক্ষেত্রে যোগ্যতার পরিচয় দিয়ে যন্ত্রশিল্পীদের পরিচয় করিয়ে উপস্থিত সবাইকে কৃতজ্ঞতা জানালেন ধৈর্য্য ধরে অনুষ্ঠান উপভোগ করার জন্য এবং একটি চমৎকার আয়োজনের কৃতিত্ব দিলেন যুক্তরাজ্যের কুলাউড়া সমিতিকে। মোহাম্মদ আজিজের গ্রন্থনায় সমগ্র অনুষ্ঠানমালা ছিল উৎসবের শৈল্পিক শৈলীর মতো অনন্য, প্রাণবন্ত ও আলোকিত।

সংবাদমেইল২৪.কম/এজে/এনআই

Facebook Comments Box

Comments

comments

advertisement

Posted ১০:৫৭ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ১৬ জুলাই ২০১৭

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত