শুক্রবার ১ জুলাই, ২০২২ | ১৭ আষাঢ়, ১৪২৯

কুলাউড়ায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা,আটক-৩

কুলাউড়া  সংবাদদাতা:: | রবিবার, ১২ জুন ২০২২ | প্রিন্ট  

কুলাউড়ায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা,আটক-৩

কুলাউড়ায় দুই স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

(১১ জুন) শনিবার রাতে উপজেলার টিলাগাঁও এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে স্থানীয় এলাকাবাসী।


আটককৃতরা হলো- বড়লেখা উপজেলার দক্ষিণভাগ এলাকার ময়নুল হকের ছেলে মো. শাহিন আহমদ, বারেক মিয়ার ছেলে মো. তোফাজ্জল হক ও মৃত নূরুল ইসলামের ছেলে মো. হোসেন। এ ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকাল ৯টার দিকে ওই দুই স্কুলছাত্রী পরীক্ষা দিতে স্কুলে যায়। পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে দুপুর ১টার দিকে টিলাগাঁও ইউনিয়নের বিজলী এলাকায় স্কুলছাত্রীদের বাড়ির সামনে আগে থেকে ওৎ পেতে বসে থাকা শাহিন, তোফাজ্জল ও হোসেন তাদেরকে জোরপূর্বকভাবে অপহরণ করে সিএনজি অটোরিকশা করে শমসেরনগরের দিকে নিয়ে চলে যায়। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলেও অপহরণকারীদের আটক করতে তারা ব্যর্থ হন স্থানীয়রা । পরে ওই দুই স্কুলছাত্রীকে কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের পাশে একটি জঙ্গলে নিয়ে যায় তারা। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পর দুই স্কুলছাত্রীকে তারা জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করলে তাদের চিৎকারে ভয়ে অপহরণকারীরা তাদের গাড়িতে উঠিয়ে ফের বাড়ির সামনে পৌঁছে দেয়। সেখানে পৌঁছার পর তারা কান্নাকাটি করলে বাড়ির লোকজন সহ স্থানীয়রা এসে অপহরণকারীদের ধরে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।


কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিনয় ভূষন রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আটককৃত ৩ জনকে ১২ জুন রবিবার সকালে মৌলভীবাজার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

Facebook Comments Box


Comments

comments

advertisement

Posted ৪:০৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১২ জুন ২০২২

সংবাদমেইল |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

সম্পাদক ও প্রকাশক : মো. মানজুরুল হক

নির্বাহী সম্পাদক: মো. নাজমুল ইসলাম

বার্তা সম্পাদক : শরিফ আহমেদ

কার্যালয়
উপজেলা রোড, কুলাউড়া, মেলভীবাজার।
মোবাইল: ০১৭১৩৮০৫৭১৯
ই-মেইল: sangbadmail2021@gmail.com

sangbadmail@2016 কপিরাইটের সকল স্বত্ব সংরক্ষিত