স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের রাস্থা সমস্যা ও লোকচক্ষু অদৃশ্যমান!

লুৎফুর রহমান রাজুঃ | ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ২:১৮ অপরাহ্ন
অ+ অ-

কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের একমাত্র স্বাস্থ্য সেবাদানকারী কেন্দ্রটি পুরাতন টিনসেডের ঘর ও রাস্থা সমস্যায় জর্জরিত। এলাকার অনেকের সাতে এভাবেই আলাপচারীতা চাচা বরমচাল স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি কোথায়?

এ রাস্থা দিয়ে সোজা গিয়ে তার পর ডান দিকে তাকালেই দেখতে পাবেন। এরকমভাবে অনেকেই বলে থাকেন। কিন্তু যিনি যাবেন তিনি গিয়ে ডান দিকে তাকিয়ে আরেক জনকে না পেয়ে বললেন একি কথা।তিনি বললেন এই যে পুরানো ঘরটা দেখছেন তার পিচনে গেলেই পেয়ে যাবে। এরকমি চলছে বরমচাল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র সেবা নিতে যাওয়া অনেকেরি পদযাত্রা। সময়ের পরিক্রমায় পুরাতন ঘরটি এখন পরিত্যাক্ত পড়ে আছে।কিন্তু নতুন টি খুজতে গিয়ে পড়তে হয় অনেকেরি বিড়ম্বনায়।এলাকার অনেকেই জানিয়েছেন এই পরিত্যাক্ত ঘরটি সরিয়ে দিলে বা ভেংগে দিলে নতুন দ্বিতল ভবনটি সবার চোখে দৃশ্যমান হতে ও চলাচলের রাস্থার আর কোন সমস্যা হবে না। এতে করে স্বাস্থ সেবা নিতে আসা অনেকেই সহজে এই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্রটি পেয়ে যাবেন।এ দিকে পুরাতন ঘরটির পাশে এক ফুটের মতো রাস্থা এবং এর পাশে বড় একটি গর্ত রয়েছে।



যা রোগিবহনকারী রিক্সা বা কোন প্রকার ছোট আকারের যান ও লোক চলাচলে যতেষ্ট নয়। বিশেষ ককরে পাশের এ গর্তের কারনে অনেক সময় স্বাস্থ্য সেবা নিতে আসা অনেকেই এ গর্তে পতিত ও হয়েছেন। সে জন্য অনেক সময় সেবা নিতে আসা প্রস্রুতি মহিলা বা দূর্ঘটনায় আহত অনেকেই মূল রাস্থায় গাড়ি রেখে মূল কেন্দ্রে অনেক কষ্ট করে যেতে হয়। এলাকার সচেতন কিছু জনসাধারণ জানান পুরানো ঘরটি সবসময় ময়লা আবর্জনায় ভর্তি তাকে। অধিকাংশ সময় আবর্জনা জনিত কারনে অনেকেই এর পাশ দিতে যেতে পারেন না। তাই এলাকাবাসীর দাবি যত দ্রুত সম্ভব সামনের এই পরিত্যাক্ত ঘুরটি ভেংগে রোগী বহনকারী যান চলাচল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রের দ্বিতল ভবনটি এলাকাবাসীর কাছে দৃশ্যমান করতে যতাযত কর্তৃপক্ষ তড়িৎ ব্যাবস্থা নিবেন।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 340 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত