শিশুর কান পাকা সমস্যা প্রতিরোধ করার একমাত্র উপায়

সংবাদমেইল ডেস্ক : | ২০ নভেম্বর ২০১৬ | ১০:১১ পূর্বাহ্ন
অ+ অ-

কান পাকা রোগ আমাদের দেশে একটি সাধারণ সমস্যা। চিকিৎসকের ভাষায় এই রোগকে COM অর্থাৎ ক্রনিক অটাইসিস মিডিয়া বলা হয়। সঠিক চিকিৎসার মাধ্যমে এ রোগ দ্রুত সারানো যায়। তবে দীর্ঘদিন ধরে শিশু যদি এ রোগে ভুগতে থাকে এবং তার চিকিৎসা না হয় তাহলে এ রোগ জটিল দিকে মোড় নেয়ার আশংকা থাকে।

চিকিৎসকের মতে, কানের পর্দায় একটা স্থায়ী অসামঞ্জস্য তৈরি হলে কান পাকা রোগ হয়। মধ্যকর্ণের আকস্মিক প্রদাহ, মধ্যকর্ণের বায়ুচাপ অথবা সেখানে পানি জমে থাকলে এ রোগের আশংকা দেখা যায়। অ্যাডেনয়েডের সমস্যা বা টনসিলের অস্ত্রোপচার হয়ে থাকলেও কান পাকতে পারে।



এছাড়া শিশুকে খাওয়ানোর পদ্ধতিতে কিছু ভুল, শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ অর্থাৎ যাদের প্রায়ই সর্দি, কাশি, গলা ব্যথা বা এ ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে তাদেরই কান পাকার আশংকা থাকে সবচেয়ে বেশি।

কান পাকলে কানে ব্যথা বা ভারী অনুভব হয়। কিছুদিন কানে ব্যথা বা অস্বস্তি হওয়ার পর হঠাৎ করে কান থেকে পুঁজ বা অন্য কোনো ধরনের তরল বের হয়ে আসতে থাকে।

চিকিৎসা

কান পাকা সমস্যা প্রতিরোধ করার একমাত্র উপায় হচ্ছে, কান সবসময় পরিষ্কার রাখা। ব্যথানাশক ওষুধ খাওয়ানো যেতে পারে তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে। ছোট্ট শিশুকে গোসলের সময় বা খাবার খাওয়ানোর সময় খেয়াল রাখতে হবে খাবার যে কোনও ভাবেই কানের ভিতরে না ঢোকে। প্রয়োজন হলে কনে তুলা বা কাপড় গুঁজে দিয়ে খাওয়াতে হবে।

তবে কান পাকলে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই এটা চিকিসার মাধ্যমে সহজেই সেরে যায়। তবে কিছু শিশু ভালো হয়ে গেলেও পরে আবারও কান পাকার আশংকা থাকে। এ রকম হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।

শিশু হাসপাতাল, শ্যামলী, ঢাকা

সংবাদমেইল২৪.কম/এন আই/এনএস

Comments

comments

পড়া হয়েছে 974 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত