বড়লেখায় ছোট বোনকে কুপিয়ে আহত করল বড় ভাই

বড়লেখা প্রতিনিধি,সংবাদমেইল২৪.কম | ০৩ আগস্ট ২০১৭ | ৮:৪৭ অপরাহ্ণ
অ+ অ-

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় ছোট বোনের স্বামীর জমি বিক্রির ৩ লাখ টাকা ধার নিয়ে মেয়ের বিয়ে দিলেন বড়ভাই রণজিত বিশ্বাস। ৬ মাস পর পাওনা টাকা ফেরৎ চাওয়ায় হতভাগী বোনকে তিনি দা দিয়ে কুপিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন। আইনের আশ্রয় নেয়ায় তিনিসহ মামলার স্বাক্ষীদের প্রাণনাশের হুমকিও দিচ্ছে রণজিত গংরা। অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার সাহীন আহমদের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে রণজিৎ বেপরোয়া আচরণ করছে।

এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বর্নি ইউনিয়নের পানিশাইল গ্রামের মৃত কুলেন্দ্র বিশ্বাসের স্ত্রী সুলতা রাণী বিশ্বাস প্রায় ৬ মাস পূর্বে পারিবারিক প্রয়োজনে স্বামীর জমি বিক্রি করেন। এ খবরে বড়ভাই রণজিৎ বিশ্বাস মেয়ে পলিতা রাণী বিশ্বাসের বিয়ের জন্য ৩ মাসের মধ্যে ফেরৎ দেয়ার শর্তে ৩ লাখ টাকা ধার নেন। প্রায় ৬ মাস পর বুধবার বিকেলে সুলতা রাণী আহমদপুর গ্রামে বাবার বাড়িতে গিয়ে পাওনা টাকা ফেরৎ চান। এসময় রণজিৎ বিশ্বাস, স্ত্রী দৈবকি রাণী বিশ্বাস গংরা সঙ্গবদ্ধভাবে সুলতা রাণী বিশ্বাসের উপর হামলা চালায়। রণজিৎ প্রাণনাশের উদ্দেশ্যে দা দিয়ে কোপ দিলে সুলতা বামহাত তুলে নিজেকে রক্ষা করেন। এতে বামপাতে মারাত্মক জখম হয়। পরে স্বজনরা তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় তিনি বড়ভাই রণজিৎ বিশ্বাসসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন।



হাসপাতালে সুলতা রাণী জানান, থানায় মামলায় করায় আসামীরা তিনি ও স্বাক্ষীদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাড়ি বাড়ি যাচ্ছে। এলাকাবাসী প্রধান আসামীকে আটক করে স্থানীয় ইউপি মেম্বার সাহিন আহমদের নিকট সোপর্দ করে থানায় খবর দেন। পুলিশ যাওয়ার আগেই সাহীন মেম্বার তাকে সরিয়ে দেয়।

বড়লেখা থানার এসআই অমিতাভ দাস তালুকদার জানান, আসামীদের গ্রেফতারের জন্য তিনি বেশ কয়েকবার অভিযান চালিয়েছেন।

সংবাদমেইল/এজেএল/জেএইচজে

Comments

comments

পড়া হয়েছে 1175 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
x