১৪ বছর ধরে সংস্কার হয়নি

কৌলা চৌধুরীবাজার রাস্তার বেহালদশা

আশরাফুল ইসলাম জুয়েল,সংবাদমেইল২৪.কম | ১৭ অগাস্ট ২০১৮ | ৪:৩০ অপরাহ্ন
অ+ অ-

ভোগান্তির শেষ নেই কুলাউড়া উপজেলার রাউৎগাঁও ইউনিয়নের চৌধুরীবাজার থেকে কৌলা গ্রামের সড়কের ছোট-বড় অসংখ্য গর্ত আর খানা খন্দে ভরা, কোথাও পিচ উঠে পাথর বেরিয়ে এসেছে। কোথাও আবার দেখা দিয়েছে বড় বড় গর্তের। তাই ভ্যান, অটোরিকশা, সিএনজিসহ যানবহনে যাত্রীদের প্রচন্ড ঝাকুনির মধ্যেই চলাচল করতে হচ্ছে।

সরজমিন গিয়ে দেখা যায়, প্রায় ১৪ বছর ধরে এই সড়কটি ভাঙ্গাচোরা অবস্থায় থাকলেও তা সংস্কারে সংশ্লিষ্টদের কোনো উদ্যোগ নেই। প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় কুলাউড়া রবিবাজারের ব্যস্ততম এই রাস্তা যখন বন্ধ যায়, তখন সেই রাস্তা দিয়ে হালকা ভারি সব ধরনের যানবাহনের যাতয়াতের ফলে কৌলা চৌধুরীবাজার রাস্তাটির বেহালদশা হয়। আড়াই কিলোমিটারের রাস্তায় বেশি যানবাহনের কারনে এই এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়। এবং রাস্তার ব্রীজ-কালভাট ব্যবহারে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ভাঙ্গন সেগুলো আরও বহন করছে কোনটি একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে বর্ষা মৌসুমে এলাকায় জলাবদ্ধতা সৃষ্টি করে রাস্তাটি পানির নিচে তলিয়ে যায়। প্রতিদিন রাস্তাটিতে চলাচলে চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে চৌধুরীবাজার কৌলা গ্রামের স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীসহ স্থানীয় জনসাধারণ। রাস্তা ভাঙ্গা থাকায় বয়স্ক ব্যক্তি, নারী, শিশু ও রোগীদের পথ চলতে সমস্যা হয়। বিশেষ করে রাতের বেলা প্রায়ই গর্তে পড়ে সিএনজি, অটোরিক্সা উল্টে পড়ারও ঘটনা ঘটে থাকে। অনেক সময় পথচারীরা হাটতে গিয়ে অসাবধানবশত গর্তে পড়ে আহতও হচ্ছে।



প্রায় ১৪ বছর পূর্বে রাস্তাটির সংস্কার কাজ হলেও আজ অবদি একবারেও দৃশ্যমান কোন সংস্কার সংস্কার কাজ হয়নি। অবিলম্বে এ সড়কটি সংস্কারের দাবি স্থানীয় ভুক্তভোগী জনসাধারণ ও স্কুল কলেজ মাদরাসায় পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীদের। দিন মাস বছর যায় নির্বাচনের সময় জনপ্রতিনিধিদের আশ্বাস আর আশ্বাসই থেকে যায়।

রাউৎগাও ইউপি সদস্য ইসমাইল হোসেন জানান, সাবেক এমপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের সময় রাস্তাটি পাকাকরণ করা হয়েছিল। এর পর আর কোন কাজ হয়নি।

ভুক্তভোগী জনসাধারণ ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কৌলা গ্রামে অনেক বড় বড় নেতা থাকার পর উনাদের দৃষ্টি যেন এড়িয়ে চলছেন। এলাকার প্রতি যেন তাদের কোন দায়িত্ববোধ নেই? তারা শুধু সভা সমাবেশ নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে এটা আমাদের দুর্ভোগের বিষয়।

এলাকাবাসীর দাবী স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, সংসদ সদস্য,উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ অতিবিলম্বে রাস্তাটির সংস্কারের জন্য সু-নজড় দিবেন।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 325 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত