কুলাউড়ায় সাংবাদিকদের সাথে উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল ইসলামের মতবিনিময়

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | ৩১ অক্টোবর ২০১৮ | ৯:০৫ অপরাহ্ণ
অ+ অ-

কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুব বিষয়ক সম্পাদক আসম কামরুল ইসলাম মৌলভীবাজার-২ কুলাউড়া আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।

তিনি কুলাউড়ার সাংবাদিকদের সাথে ৩১ অক্টোবর বুধবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে মতবিনিময় সভা করেন। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের দশ বছরের উন্নয়ন ও সাফল্যের অগ্রযাত্রা আজ বিশ্বের বুকে উন্নয়নের রোল মডেল। সারাদেশের পাশাপাশি বিগত দশ বছরে কুলাউড়ার আনাচে-কানাছে ব্রীজ, রাস্তাঘাট, কালভার্টসহ শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন ও পরিবর্তন ঘটেছে। আশা করি এর ধারাবাহিকতা আগামীতেও থাকবে। দেশে এখন দরিদ্রতার হার অনেকটা কমে গেছে। শিক্ষার উন্নয়নে বর্তমান সরকার অতুলনীয় কাজ করে যাচ্ছে। এছাড়া এই সরকার বিদ্যুতের জন্য যুগান্তকারী প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বিদ্যুতে আমরা এখন স্বয়ংসম্পূর্ণ। আশা করা যাচ্ছে ২০২১ সালের মধ্যে কুলাউড়ায় শতভাগ বিদ্যুতের সুফল ভোগ করবে সাধারণ লোকজন।

মনোনয়ন প্রত্যাশী কামরুল ইসলাম আরোও বলেন, কুলাউড়ার মানুষ তাঁর দশ বছরের কাজের মূল্যায়ন করবে। তিনি তাঁর বাবার আদর্শকে বুকে লালন করে মানুষের ভালোবাসা নিয়ে এবার সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচন করতে আগ্রহী।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর একটি ঘোষণা যে, উপজেলা চেয়ারম্যান দলীয় এমপি’র মনোনয়ন চাইতে পারবেন না এমন প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, দলের সিদ্ধান্ত মেনে আমি কাজ করে যাবো, তবে এই ঘোষণা যদিও এখনো লিখিতভাবে কোনো চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। দলীয় মনোনয়ন পেলে আমি উপজেলা চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করে সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকে প্রার্থী হতে পারি। এছাড়াও দল যাকে মনোনয়ন দিবে, তার পক্ষে আমরা কাজ করবো।

তিনি দলীয় প্রধানের কাছে দাবী জানিয়ে বলেন, তৃণমূলের দাবী, এই আসনে যাতে জোট থেকে লাঙ্গলের প্রার্থী না দেয়া হয়। ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামীলীগের সমর্থন নিয়ে লাঙ্গলের প্রার্থী নবাব আলী আব্বাছ খাঁন বিজয়ী হয়ে সরকার থেকে সকল সুযোগ- সুবিধা নিয়ে পরে তিনি মহাজোট ছেড়ে কাজী জাফরের গ্রুপে গিয়ে খালেদার ২০ দলীয় জোটে অংশ নেন। কাজেই এলাকার নৌকা প্রেমিরা আর লাঙ্গল প্রতীক চান না। নৌকার প্রার্থীকে আমরা এবার ভোট দিয়ে বিজয়ী করবো। ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারি নির্বাচনে লাঙ্গলের বিপরীতে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল মতিন নির্বাচনে জয়লাভ করেন। এই এলাকার তৃণমূল নেতাকর্মীর দাবী, উড়ে এসে জুড়ে বসা কাউকে মনোনয়ন না দেয়া হয়। যারা কুলাউড়ায় স্থায়ীভাবে থেকে তৃণমূলে মানুষ ও দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন, তাদের যে কাউকে জনপ্রিয়তা যাচাই করে চূড়ান্তভাবে মনোনয়ন দেবার জোর দাবি জানান।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 177 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত