কুলাউড়ায় শুভসংঘের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৭:১৭ অপরাহ্ণ
অ+ অ-

কুলাউড়ায় দৈনিক কালের কণ্ঠ শুভসংঘের আয়োজনে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত শিশু-কিশোরদের নিয়ে চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী সম্পন্ন করা হয়েছে।

২৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেলে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে পুরস্কার বিতরণীর প্রথম পর্ব শুরু হয়। আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় শুভসংঘের সদস্যরা থেমে যাননি। পরে আগত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের স্বতঃর্স্ফুত অংশগ্রহণ দেখে শুভসংঘের সদস্যরা প্রাকৃতিক প্রতিকূলতাকে মোকাবেলা করে কুলাউড়া ডাকবাংলো ভবনের ভিতরে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি ও শুভসংঘের উপদেষ্ঠা মাহফুজ শাকিল এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মহি উদ্দিন রিপনের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন শুভসংঘের উপজেলা কমিটির প্রধান উপদেষ্টা ও কুলাউড়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য সজল।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন এম এ গণি আর্দশ কলেজের প্রভাষক সাবিনা ইয়াছমিন, মৌলভীবাজার জেলা সাংবাদিক ফোরামের সহ-সভাপতি ও শুভসংঘের উপদেষ্ঠা এম. মছব্বির আলী, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি কুলাউড়া উপজেলা ইউনিটের সভাপতি মোক্তাদির হোসেন।

সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কালের কণ্ঠ শুভসংঘের কুলাউড়া উপজেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরান আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক তানজিদা আক্তার সেবিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাবিবুর রহমান সুজন, কোষাধ্যক্ষ মেহেদী হাসান, সমাজকল্যাণ সম্পাদক সৈয়দ মাহফুজ হামিদ, ক্রীড়া সম্পাদক রুমেল আহমদ চৌধুরী, কার্যকরী সদস্য তাজুল ইসলাম তুহিন।

উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতায় কুলাউড়া পৌর শহরের ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে তিন বিভাগের প্রথম তিনজন করে মোট নয়জনের নাম ঘোষণা করে পুরস্কার দেওয়া হয়। এবং আরো উনিশজনকে বিশেষ পুরস্কার দেয়া হয়। তাছাড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া সকল শিক্ষার্থীকে সম্মাননা পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কুলাউড়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ ও শুভসংঘের প্রধান উপদেষ্ঠা সৌম্য প্রদীপ ভট্টাচার্য সজল শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন কুলাউড়ার মহীয়সী নারী ভাষা সেনানী রওশন আরা বাচ্চুকে। ১৯৫২ সালে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে ভাষা আন্দোলনের সময় রওশন আরা বাচ্চু ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী। ২১ ফেব্রুয়ারিতে যে সকল ছাত্র নেতারা ১৪৪ ধারা ভাঙ্গার পক্ষে ছিলেন তিনি তাদের মধ্যে অন্যতম। তিনি জনমত সমর্থনের জন্যও ব্যাপক চেষ্টা করেন। তিনি শুভসংঘের ভালো কাজের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে শিক্ষার্থীরা যে চিত্র অঙ্কণ করেছে তাতে ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন প্রতীকি ছবি ও স্লোগান ফুঠে ওঠেছে। আমি শুভসংঘের সকল ভালো কাজের পাশে থেকে সমাজ বিনির্মাণে কাজ করে যাবো।

চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগীদের অভিভাবক প্রতিনিধি হিসেবে প্রভাষক সাবিনা ইয়াছমিন শুভসংঘের প্রশংসা করে বলেন, ভাষার মাসে ভাষা শহীদদের স্মরণ করে কুলাউড়া শুভসংঘ যে ব্যতিক্রমী চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে তাতে আমাদের সন্তানেরা নতুন করে অনেক কিছু জানবে।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 143 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত