কুলাউড়ায় মামাতো বোনকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্রমিকলীগ নেতা কারাগারে

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫:২৫ অপরাহ্ন
অ+ অ-

কুলাউড়ায় কলেজছাত্রী মামাতো বোন (২১) কে ধর্ষনের অভিযোগে ইউনিয়ন শ্রমিক লীগ নেতা শাহ হেলাল (২৫) কে আটক করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। এঘটনায় নির্যাতিতা তরুনী নিজে বাদী হয়ে সোমবার দিবাগত রাত দুইটায় হেলালকে আসামী করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, কলেজ পড়ুয়া ওই তরুণী মৌলভীবাজার সরকারি কলেজ কেন্দ্রে তাঁর স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের পরীক্ষা দিচ্ছেন।
সোমবার বিকেলে পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফিরতে তিনি কলেজের সামনে গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। একপর্যায়ে তাঁর সম্পর্কে ফুপাতো ভাই শাহ হেলাল মোটরসাইকেল যোগে সেখানে যান। তিনি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে তাঁকে জোর পূর্বক মোটরসাইকেলে তোলেন। একপর্যায়ে কুলাউড়ায় পৌঁছার পর ওই যুবক কাজ দেখার কথা বলে তাঁদের নির্মাণাধীন একটি ভবনের ভেতরে তরুণীকে নিয়ে যান। সেখানে সে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে। পরে একটি অটোরিকশায় তুলে তরুণীকে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। তরুণী বাড়ি পৌঁছে স্বজনদের বিষয়টি জানালে পরিবারের লোকজন ওই দিন দিবাগত রাত দুইটার দিকে তরুনীকে নিয়ে তাঁর ফুপাতো ভাই হেলালের বিরুদ্ধে ধর্ষন মামলাটি করেন।



ধর্ষক এইচ আর শাহ হেলাল নিজেকেে উপজেলার ব্রাহ্মনবাজার ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও দৈনিক গণজাগরণ পত্রিকার পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত রয়েছে বলে জানা যায়।

কুলাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে যুবক তাঁর মামাতো বোনকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। পরে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষিতা ওই ছাত্রীকে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজারের ২৫০ শয্যার হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 4411 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত