ফলোআপ-

কুলাউড়ায় ট্রেন দূর্ঘটনা, নিখোঁজ ২ যাত্রীর খোঁজ এখনো পাননি স্বজনরা!

জসিম চৌধুরী,সংবাদমেইল২৪.কম | ২৫ জুন ২০১৯ | ৫:৩৭ অপরাহ্ণ
অ+ অ-

আন্তঃনগর উপবন ট্রেন কুলাউড়ার বরমচাল এলাকায় রোববার রাতে ট্রেন দূর্ঘটনা হওয়ার পর থেকে দুই যাত্রী এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের সন্ধান পেতে বিভিন্ন হাসপাতাল ও দূর্ঘটনাস্থলে ঘুরছেন স্বজনরা।

নিখোঁজদের পরিবার সূত্রে জানা যায়, রোববার (২৩ জুন) রাতে সিলেট থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেসের যাত্রী ছিলেন সিলেট সদর উপজেলার খাদিমনগর ইউনিয়নের পিরগাঁও বালিয়াকান্দি গ্রামের দুলাল আহমদ (৩৫) ও দক্ষিণ সুরমার বরইকান্দি গ্রামের আবুল কালাম (৩৬)। ওইদিন রাতে মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার বরমচালে ট্রেন দুর্ঘটনার পর এখন পর্যন্ত তাদের আর খোঁজ মিলেনি।

এদিকে সোমবার (২৪ জুন) বিকেলে তাদের সন্ধানে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছুটে আসেন তাদের স্বজন। কিন্তু হাসপাতালে তাদের পাওয়া যায়নি।

নিখোঁজ দু’জনের স্বজন কান্নাকন্ঠে জানান, দুলাল ও কালাম ওইদিন উপবনে ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করে। সোমবার দুপুর পর্যন্ত তারা ঢাকায় পৌঁছায়নি। তাদের ব্যবহৃত মুঠোফোনও এখনো বন্ধ রয়েছে। ওসমানী হাসপাতাল ছাড়াও মৌলভীবাজার ও কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খোঁজাখুঁজির পরও তাদের সন্ধান পাইনি।

হাসপাতালে দুলাল আহমদের খোঁজ করতে আসা পিতা রশিদ আলী জানান,তার ছেলে ঢাকার একটি পোশাক কারখানায় কাজ করে। এখন পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান পাননি।

অপরদিকে কালামের চাচাতো ভাই আব্দুল আলী জানান, কালাম ঢাকায় পরিবার নিয়ে বসবাস করে। ঢাকা থেকে কালামের স্ত্রী মোঠফোনে জানিয়েছেন,সোমবার দুপুর পর্যন্ত তিনি সেখানে পৌঁছাননি। এছাড়াও সোমবার রাতে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কয়েকজন অভিভাবক তাদের নিখোঁজ স্বজনের সন্ধান করেছেন বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা ডা নুরুল হকের কাছে মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টায় জানতে চাইলে তিনি জানান, দূর্ঘটনার পর ৪ জনের লাশ হাসপাতালে ছিল তাদের স্বজনরা চিহ্নিত করে আইন অনুযায়ী তাদের লাশ পরিবারেরর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এখন আরর কোন লাশ হাসপাতালে নেই।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 382 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত