কুলাউড়ায় ছাত্রলীগ নেতার নেতৃত্বে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা : আহত -২

বিশেষ প্রতিনিধি,সংবাদমেইল২৪.কম | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৪:৩৪ অপরাহ্ন
অ+ অ-

কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরেফিন তায়েফের নেতৃত্বে দিলদারপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর উপর হামলার খবর পাওয়া গেছে।

সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর বিকেলে স্কুল ছুটির পর ছাত্রদের উপর এ হামলা চালানো হয়। এতে গুরুতর আহত ২ স্কুল ছাত্র কুলাউড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।



আহত স্কুল ছাত্র ও স্থানীয় লোকজন জানান, বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র শোভন ও জাহিদের মধ্যে ক্লাসে প্রবেশ নিয়ে পূর্ব থেকে বিরোধ চলছিলো। গত রোববার বিদ্যালয়ে একই ঘটনার জেরে শোভন একই ক্লাসের জাহিদ, মাজার, নাঈম, শাফি, মির্জানকে দেখে নেয়ার হুমকি দেয়। তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে শোভন তাদের মারধর করে। তারাও শোভনকে পাল্টা মারধর করে। ছাত্ররা বিষয়টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অন্যান্য শিক্ষকদের জানালে তারা বিষয়টির মীমাংসা করে দেন। কিন্তুু মীমাংসা হবার পর নবম শ্রেণীর ছাত্র শোভন বিষয়টি তার চাচাই ভাই এলাকার চিহ্নিত বখাটে ছাত্রলীগ নেতা আরেফিন তায়েফকে জানায়।

তায়েফ বিষয়টি শুনে তেলেবেগুনে জ্বলে উঠে। এসময় সে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দিবাকর দাসকে ফোন দিয়ে দেখে নেবার হুমকি দিয়ে বলে ‘আমি ছাত্রলীগ নেতা, আমাকে আপনি চিনেন না’। তাৎক্ষণিক হুমকির বিষয়টি শিক্ষক দিবাকর স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষককে অবগত করেন। পরে প্রধান শিক্ষকের বাসায় গিয়ে আরেফিন তায়েফ সহকারী শিক্ষক দিবাকর দাসের কাছে ক্ষমা চেয়ে রেহাই পান। কিন্তুু ঘটনার পরদিন স্কুল ছুটির পর আরেফিন তায়েফের নেতৃত্বে ৪টি মোটরসাইকেলে ৯ জন বহিরাগত সন্ত্রাসীরা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উপর অতর্কিতে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা ৯ম শ্রেণির ছাত্র মির্জান আলী (১৫) ও জামিল আহমদ (১৫) কে এলোপাতাড়ি মারধর করে পালিয়ে যায়। সহপাঠীসহ স্থানীয় লোকজন আহত ছাত্রদের উদ্ধার করে কুলাউড়া হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এদিকে সহপাঠীদের উপর হামলার বিচারের দাবীতে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে বিদ্যায়ের সহস্রাধিক শিক্ষার্থী। তাৎক্ষনিক খবর পেয়ে জয়চন্ডী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি কমর উদ্দিন আহমদ কমরু ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে হামলার বিষয়টি কটোরভাবে দেখা হবে বলে শিক্ষার্থীদের শান্ত করেন।

খবর পেয়ে কুলাউড়া থানার এসআই হারুনুর রশীদ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। তিনি বলেন, হাসপাতালে গিয়ে আহত শিক্ষার্থীদের দেখে এসেছেন। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা আরেফিন তায়েফ জানান, এ ঘটনার সাথে আমি সম্পৃক্ত নই। স্কুলছাত্র শোভন তার ভাইকে নিয়ে যদি হামলা করে সেটার দায়ভার আমি নিতে যাবো কেন। একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে।

উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিয়াজুল তায়েফ ও সাধারণ সম্পাদক আবু সায়েম রুমেল জানান, আরেফিন তায়েফ একসময় ছাত্রলীগ করতো। তার বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকান্ডে তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। ছাত্রলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজি, রাতের আধারে ছিনতাই ও মাদক ব্যবসার সাথে সে দীর্ঘদিন থেকে জড়িত।

উল্লেখ্য, জয়চন্ডী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরেফিন তায়েফ একটি ছিনতাই ও ধর্ষণ মামলায় কয়েক মাস হাজতবাসের পর তাকে সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয় বলে জানা গেছে।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 349 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত