১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ১২টিতে চিকিৎসক নেই!

কুলাউড়ায় চিকিৎসক সংকট নিয়ে রেজুলেশন!

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | ১২ জানুয়ারি ২০১৭ | ৬:১৫ অপরাহ্ন
অ+ অ-

চিকিৎসক সংকটের কারণে কুলাউড়া উপজেলার ১৩টি ইউনিয়নের মধ্যে ১২টি ইউনিয়নের সাধারণ মানুষ স্বাস্থ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। আর এই পরিস্থিতিতে বিশেষ করে শিশু,বৃদ্ধ রোগীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বলে জানা গেছে। এ নিয়ে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভায় সর্বসম্মতিক্রমে একটি রেজুলেশন পাশ হয়েছে। অনতি বিলম্বে স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে শূণ্য পদে চিকিৎসক নিয়োগ দিতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমিঠির সভাপতি সংসদ সদস্য মোঃ আব্দুল মতিনের সুপারিশ নিয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে চিঠি পাঠাবেন বলে জানা গেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ সুত্র মতে, কুলাউড়া উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের অধিনে ইউনিয়ন উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র রয়েছে ১৩টি। এর মধ্যে শুধু বরমচাল ইউনিয়নের উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে মিঠুন চক্রবর্তী নামে একজন চিকিৎসক দায়িত্বপালন করছেন। বাকি গুলোতে কোন চিকিৎসক না থাকায় গ্রাম অঞ্চলের সাধারণ মানুষের চিকিৎসা ও স্বাস্থ্য সেবা  চরম ব্যাহত হচ্ছে।



(১২ জানুয়ারি) বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে মাসিক সভায় এ সিদ্বান্ত গৃহীত হয়। উপজেলা চেয়ারম্যান আসম কামরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও ইউএনও চৌধুরী গোলাম রাব্বির পরিচালনায় মাসিক সভায় হাজিপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চুর প্রস্তাবে সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যানগণ একমত পোষণ করলে এ সিদ্বান্ত গৃহীত হয়। স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের বার বার অবগত করার পরও তারা কোন প্রয়োজনীয় প্রদক্ষেপ গ্রহন না করায় সকল জনপ্রতিনিধিরা বাধ্য হয়ে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভার মাধ্যমে এ সিদ্বান্ত নিয়েছেন বলে জানা যায়। এছাড়াও সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের (আরএমও) ডাঃ জাকির হোসেনসহ বিভিন্নি স্তরের সরকারী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে মৌলভীবাজার সিভিল সার্জন ডাঃ সত্যকাম চক্রবর্তী বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে সংবাদমেইলকে জানান, চিকিৎসক সংকটের বিষয়টি হাসপাতাল কতৃপক্ষের মাধ্যমে জেনেছেন।

‘পাশাপাশি উর্ধতন কতৃপক্ষের সাথে আলাপ করে শূণ্য পদে চিকিৎসক নিয়োগ দিয়ে স্বাস্থ্য সেবার কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে দ্রুত ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান’।

সংবাদমেইল২৪.কম/নাজমুল/শরীফ/এনএস

Comments

comments

পড়া হয়েছে 597 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত