কুলাউড়ায় কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা : ২ নারীসহ আটক ৩

আশরাফুল ইসলাম জুয়েল,সংবাদমেইল২৪.কম | ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫:১৩ অপরাহ্ন
অ+ অ-

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সুলেমান (১৩) নামক এক কিশোরকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ২ নারীসহ একই পরিবারের ৩ জনকে আটক করেছে। এ ঘটনায় নিহত কিশোরের বড় ভাই রোববার ০৮ সেপ্টেম্বর ৫ জনের বিরুদ্ধে কুলাউড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়,উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের পুর্ব ফটিগুলি গ্রামের মৃত বাজিদ আলীর পুত্র কিশোর সুলেমান গত ০৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকালে নিজ বাড়ির উত্তর পাশে একটা বটগাছের নিচে বসা ছিলো। এসময় লোক মারফত একই গ্রামের আনু মিয়ার বাড়িতে ডেকে নেয়া হয় নিহত সুলেমানকে। বাড়িতে যাওয়ার পর আনু মিয়ার ছেলে রেদোয়ান মিয়ার নেতৃত্বে সুলেমানকে তাদের ঘরের ভেতরে রশি দিয়ে হাত পা বেঁধে মারপিট করা হয়। এসময় তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হন। এক পর্যায়ে স্থানীয় ওয়ার্ড মেম্বার মাসুক মিয়াসহ আরও লোকজন এসে সুলেমানকে মুমুর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়া সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।



ঘটনার পরদিন ০৭ সেপ্টেম্বর শনিবার রাত ৯টায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সুলেমানের মৃত্যু হয়। এদিকে ০৮ সেপ্টেম্বর রোববার ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে কুলাউড়া থানা পুলিশ আনু মিয়া (৪৫), তার স্ত্রী পিয়ারা বেগম (৪০) ও মেয়ে আসলিমা বেগম (১৮) কে আটক করেছে।

কর্মধা ইউনিয়নের মেম্বার মো. মাসুক মিয়া জানান, পুর্ব শত্রুতা থাকতে পারে। আমি ছেলেকে উদ্ধার করে দ্রুত মৌলভীবাজার হাসপাতালে ভর্তি করি। এরপর সেখান থেকে ওসমানী হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এব্যাপারে কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত ৩ আসামীকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 228 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত