কুলাউড়ায় অাদিবাসী তরুণ-তরুণী না ফেরার দেশে!

বিশেষ প্রতিনিধি,সংবাদমেইল২৪.কম | ৩০ মার্চ ২০১৮ | ৪:১৩ অপরাহ্ন
অ+ অ-

ট্রেনের নিচে পড়ে কাটা পড়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন কুলাউড়ার আদিবাসী প্রেমিক যুগল।

জানা যায়, শুক্রবার (৩০ মার্চ) ভোরের দিকে সিলেট আখাউড়া রেলসেকশনের লংলা রেল স্টেশন সংলগ্ন রেললাইনের উপর ঘটনাটি ঘটে। ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে তারা আত্মহত্যা করে।



নিহত আদীবাসী তরুন-তরুণীরা হলেন, উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নের আলেকজান্ডার ডিও এর ছেলে জয়ন্ত রুরাম (১৮) এবং একই এলাকার এভেন মারাকের কন্যা সন্ধ্যা সাংমা (১৬)। জয়ন্ত কুলাউড়া ডিগ্রি কলেজের বানিজ্য বিভাগের দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্র এবং সন্ধ্যা জয়চন্ডী ইউনিয়নের দিলদারপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এবছর এসএসসি পরীক্ষা সম্পন্ন করে।

স্থানীয় ও রেল পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সন্ধ্যা ও জয়ন্ত একই এলাকার বাসিন্দা সুবাদে কয়েক বছর থেকে মন দেয়া চলছে। বিষয়টি দুই পরিবারের লোকজনের মধ্যে জানাজানি হলে উভয় পক্ষের কেউ তাদের প্রেমের বিষয়টি মেনে নেয়নি। গতকাল (২৯ মার্চ) স্টার সানডে উপলক্ষ্যে সামাজিক অনুষ্ঠানে ওই এলাকার খ্রিষ্ট্রিয়ান সম্প্রদায়ের সবাই একত্র হয়। অনুষ্ঠানে তারাও উপস্থিত ছিলো। বিকালের পর থেকে কাউকে না জানিয়ে তারা উধাও হয়ে যায়। শুক্রবার ভোরের দিকে সিলেট আখাউড়া রেলসেকশনের লংলা রেল স্টেশন সংলগ্ন রেললাইনের উপর থেকে খন্ড বিখন্ড লাশ কুলাউড়া রেলওয়ে থানা পুলিশ উদ্ধার করা হয়। নিহত জয়ন্ত’র সহপাঠি দুলাল খাড়িয়া ও উজ্জ্বল বাকতি বলেন, দীর্ঘদিন থেকে জয়ন্ত ও সন্ধ্যার মধ্যে প্রেম চলছিলো। তারা আরও জানান, শুক্রবার ভোরে জয়ন্ত সর্বশেষ তাদের মোবাইলে ‘ভালো থাকিস’ উল্লেখ করে একটি ক্ষুদে বার্তা পাঠায়।

কুলাউড়া থানার রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল মালিক লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভোরে ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে তাদের মৃত্যু হয়। তাদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হবে। তিনি আরও বলেন, তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 847 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত