কুলাউড়ায় ইমাম সমাবেশে-

আহলে বাইতের মহব্বত থেকে দুরে রাখার যড়যন্ত্র শুরু হয়েছে আমাদের সজাগ থাকতে হবে-আল্লামা মুফতি গিয়াস উদ্দিন

স্টাফ রিপোর্টার,সংবাদমেইল২৪.কম | ২১ অক্টোবর ২০১৮ | ৫:১৪ অপরাহ্ণ
অ+ অ-

আল্লামা মুৃফতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী বলেন, নবী করিম (সাঃ)’র আওলাদগণকে আহলে বায়ত বলা হয়। ইসলামী দুনিয়ার আকাশে তাঁরা যেন সু-উজ্জ্বল নক্ষত্ররাজি। তাঁরা সর্বস্তরের মানুষের আদর্শ। ইসলামের প্রতিটি নীতিমালা বাস্তবায়ন হয় তাঁদের জীবনেই । তাঁদের অনুসরণই ইসলাম, তাঁরাই মানবতার মুক্তির দিশারী। তাঁদের অনুসরণই ইসলাম, তাঁদের প্রতি ভালবাসাই ঈমান। তাঁরা নবীজীর অসীম জ্ঞানসমুদ্র থেকে জ্ঞান আহরণ করেন।

তিনি বলেন, নবীজীর দেখানো পথে তাঁরা জীবন পরিচালিত করেন, তাদের চাল- চলনে কুরআন সুন্নাহ্‌ সমুজ্জ্বল। তাই তাঁদের চরিত্র অনুপম। তাঁরা কুরআন -সুন্নাহ্‌র সমুজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। তাঁরা কুরআন সুন্নাহর ধারক বাহক। নবুয়তের সমাপ্তির পর থেকে কিয়ামতের ধারা অব্যাহত থাকবে কিয়ামত পর্যন্ত তাঁদের মাধ্যমেই ইসলাম জীবিত থাকবে। ইসলামে তাঁদের সম্মান ও মর্যাদা সুউচ্চ। কুরআন- সুন্নাহতে তাঁদের মান- মর্যাদার প্রতি বিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা পোষন করা মুমিন মাত্রেই ওয়াজিব। তাঁদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা তাঁদেরকে মহব্বত করা মানেই রাসূল সাঃ কে মহব্বত করা। আহলে বায়তে রাসূল সাঃ ই সারা বিশ্বের আনাচে কানাচে আল্লাহর বাণী পৌঁছে দিয়েছেন,দেশ থেকে দেশান্তরে ছুটে গিয়েছেন অসংখ্য মানুষকে ঈমাণের মত মহামূল্যবান নেয়ামত দান করেছেন। কুফরী- শিরকীর অন্ধকার থেকে মানব সমাজকে আল্লাহর পথে নিয়ে এসেছেন। তাঁরা আল্লাহর দ্বীন প্রতিষ্ঠায় জান-মাল,ধন-সম্পদ,আওলাদ পর্যন্ত কোরবানী দিতে দ্বিধা করেননি। যেখানে যা প্রয়োজন সেখানে তা-ই আল্লাহর রাস্তায় কোরবানী দিয়েছেন। কারবালার হৃদয়বিদারক ঘটনা তার উজ্জ্বল প্রমাণ। যেখানে হযরত ইমাম হোসাইন রাঃ স্ব-পরিবারে শাকরাহাদাত বরণ করেছেন। তাই মুসলমানগন তাঁদের নিকট ঋণী। আল্লাহ এবং রাসূলেরও নির্দেশ তাঁদেরকে মহব্বত করা,তাঁদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা। তিনি কুলাউড়ায় ইমাম সমাবেশে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

লতিফিয়া ইমাম সমিতি কুলাউড়ার সভাপতি মাওঃ আব্দুল কুদ্দুছ সিদ্দিকির সভাপতিত্বে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজ শামছুল ইসলামের পরিচালনায় উদ্ভোধনী বক্তব্য রাখেন খলীফায়ে ফুলতলী আলহাজ্ব হাফিজ মহসিন খান, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুলাউড়া উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ ফজলুল হক খান সাহেদ।

বক্তব্য রাখেন,লতিফিয়া ইমাম সমিতি কুলাউড়া উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক মাওঃ আবু আইয়ুব আনসারী, কুলাউড়া উপজেলা আল ইসলাহ’র যুগ্ম সম্পাদক এহসানুল মাহবুব জাকির, পৌর লতিফিয়া ইমাম সমিতির সভাপতি হাফিজ আনোয়ার হোসেন, সাধারন সম্পাদক মাওঃ হাবিবুর রহমান হাসানী, সহ সাধারন সম্পাদক হাফিজ জুনাব আলী, রাউৎগাউ ইউনিয়ন সভাপতি মাওঃ ফয়জুর রহমান, ব্রাক্ষণবাজার ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক হাফিজ আব্দুছ ছামাদ প্রমুখ।

Comments

comments

পড়া হয়েছে 334 বার
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত